মেইন ম্যেনু

ঝালকাঠির কিছু খবর

ঝালকাঠি সরকারী কলেজে ছাত্রলীগ সভাপতির তান্ডব

কলেজে ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাবেক ছাত্র তরিকুল ইসলাম অপুর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলতে বিলম্ব করায় ঝালকাঠি সরকারী কলেজের প্রধান হিসাব রক্ষক জালাল আহম্মেদকে লাঞ্চিত ও হুমকি দিয়েছে বলে জানা গেছে। এ সময় সে হিসাব রক্ষকের রুমের চেয়ার-কাগজপত্র ছুড়ে ফেলেছে ও ফরম ফিলাপ কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার বেলা ১২টায় এঘটনায় কলেজে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আতংকিত হয়ে পড়ে পড়লে ফরম ফিলাপ কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ হয়ে যায়। পরে কলেজের অধ্যক্ষ মজিবুর রহমান সহ অন্যান্য শিক্ষকরা এগিয়ে আসলে সে কলেজ ত্যাগ করেন। এ ব্যাপারে সরকারী কলেজের প্রধান হিসাব রক্ষক জালাল আহম্মেদ জানায়, কলেজের অধ্যক্ষ তাকে তার কক্ষে ডেকে কথা বলার সময় কলেজে ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাবেক ছাত্র অপু এক ছাত্রের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে আমর সাথে কথা বলতে চাইলে আমি একটু পরে কথা বলছি বলে জানাই। কিছু সময়ের মধ্যেই সে নিজেই কলেজে এসে আমাকে গালাগাল করতে শুরু করে ও কাগজপত্র ও চেয়ার ছুড়ে মেরে ফরম ফিলাপ হবেনা বলে হুমকি দেয়। ডাক-চিৎকার শুনে কলেজের অধ্যক্ষ সহ কয়েক শিক্ষক এগিয়ে আসলে সে ক্যাম্পস ত্যাগ করে।
এ ব্যাপারে কলেজের অধ্যক্ষ মজিবুর রহমান জানায়, বিষয়টি আমি শুনেছি তবে বোর্ডে কর্তৃপক্ষের নির্দেশ ছাড়া তো ফরম ফিলাপ বন্ধ থাকবেনা। আমাদের পক্ষ থেকে যে যে পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন তা অবশ্যই নেয়া হবে। এটা আমরা ভূলে জায়নি। আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেবো।
কলেজে ছাত্রলীগ সভাপতি ও কলেজের মেয়াদ উত্তীর্ন ছাত্রপরিষদের মনোনীত ভিপি তরিকুল ইসলাম অপুর কাছে জানতে চাওয়া হলে বলেন, তাদেও সাথে কোন প্রকার আলাপ না করে কলেজের চলমান এইচএসসি পরীক্ষা বোর্ড নির্ধারিত অর্থের চেয়ে এক/দেড় হাজার টাকা বেশী আদায় করা হচ্ছে। সে একটি পিতামাতাহীন দরিদ্র ছাত্রের ফরম ফিলাপে এক হাজার টাকা কম নেয়ার জন্য প্রধান হিসাব রক্ষক জালাল আহম্মেদ কে অনুরোধ করলেও তিনি উপেক্ষা করায় ক্ষোভের কারনে সামান্য হাতাহাতি হয়। পরে কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করে ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে।
বরিশাল প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দকে ঝালকাঠির টিভি সাংবাদিক সমিতির অভিনন্দন
ঐতিহ্যবাহী বরিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক পুলক চ্যাটার্জিসহ নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন জানিয়েছে ঝালকাঠির টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতি। টাউন হলের সমিতি কার্যালয়ে সোমবার অনুষ্ঠিত বার্ষিক সভায় এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। নবনির্বাচিত কমিটি শুধু বরিশাল প্রেস ক্লাব নয়, পুরো দক্ষিণাঞ্চলের সাংবাদিকদের ঐক্য প্রতিষ্ঠা ও পেশাগত মর্যাদা বৃদ্ধিসহ সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে বলে সভায় আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। অভিনন্দনদাতারা হলেন- সমিতির সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন হিমু (বিটিভি), সহ-সভাপতি : শ্যামল চন্দ্র সরকার (এটিএন ও এটিএন নিউজ) ও মাসউদুল আলম (আরটিভি); সাধারণ সম্পাদক দুলাল সাহা (যমুনা টিভি), সহ-সাধারণ সম্পাদক : আজমির হোসেন তালুকদার (একুশে টিভি) ও আহসানুল কবীর মামুন (মোহনা টিভি); কোষাধ্যক্ষ : তরুণ সরকার (একাত্তর টিভি), দফতর সম্পাদক : জহিরুল ইসলাম জলিল (আরটিভি) এবং কার্যনির্বাহী সদস্য : জিয়াউল হাসান পলাশ (চ্যানেল ২৪), কাজী খলিলুর রহমান (দিগন্ত টিভি), হুমায়ূন কবীর (বাংলাভিশন), শহীদুল আলম (গাজী টিভি), কাওসার হোসেন (ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভি), মঈনুল হক লিপু (চ্যানেল নাইন) ও মাসুম বিল্লাহ (মোহনা টিভি)।
১৩৪টি এ+ পেয়ে দাখিল অষ্টমে বাংলাদেশে ৪র্থঝালকাঠী এন এস কামিল মাদরাসা
ঝালকাঠী এন এস কামিল মাদরাসা (নেছারাবাদ মাদরাসা) দাখিল অষ্টম পরীক্ষায় ১৩৪ টি এ+ পেয়ে মাদরাসা বোর্ডে ৪র্থ স্থান অর্জন করেছে। ১৮১ জন ছাত্র দাখিল অষ্টম শ্রেনীর পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। যাদের মধ্যে ১৩৪ টি এ+ বাকী সকলে এ গ্রেডে উত্তীর্ণ হয়েছে। হাদীয়ে যামান পীরে কামেল হযরত কায়েদ ছাহেব হুজুর রহ. প্রতিষ্ঠিত ঝালকাঠী এন এস কামিল মাদরাসা
এ সাফল্য বিগত দিনের ধারাবাতিকতারই ফসল। যুগশ্রেষ্ঠ দার্শনিক হযরত কায়েদ ছাহেব হুজুর রহ. ১৯৫৬ ইং সনে মকতব দিয়ে এ প্রতিষ্ঠানটির গোড়াপত্তন করেন। কালের পরিক্রমায় আজ এ মাদরাসাটি বরিশাল বিভাগের মধ্যে একমাত্র অনার্স ও মাস্টার্স পর্যায়ের প্রতিষ্ঠান। দাখিল-আলিমে বিজ্ঞান, কম্পিউটার, ফাযিলে ২ বিষয়ে অনার্সসহ কামিলে হাদীস তাফসীর ও ফিকহ বিভাগ নিয়ে গড়ে ওঠা সাড়ে তিন হাজার ছাত্রের পদচারণায় মুখরিত বাংলাদেশের শীর্ষ স্থানীয় প্রতিষ্ঠানে রুপ লাভ করেছে। মাদরাসার বর্তমান অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ খলীলুর রহমান নেছারাবাদী ১৯৯৪ ইং সনে দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে গভনিং বডি, শিক্ষকমন্ডলী ও অভিভাবকদের সহযোগিতায় মাদরাসার অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি শিক্ষাজগতে দেশ সেরা প্রতিষ্ঠানসমূহের এক মাইল ফলকে পরিণত হয় এ মাদরাসা। এ মাদরাসা থেকে ২০১২ ইং সনে দাখিলে ২২০ টি এ+ পেয়ে মাদরাসা বোর্ডে ২য় স্থান, ২০১১ সনে দাখিলে ১৩০ জন ছাত্র এ+ পেয়ে মাদরাসা বোর্ডে ১ম স্থান এবং আলিমে ৯৪ জন ছাত্র এ+ পেয়ে মাদরাসা বোর্ডে ২য় স্থান, ২০১৩ সনে আলিমে ১২১ টি এ+ পেয়ে মাদরাসা বোর্ডে ১ম স্থান অর্জন করে।
ঝালকাঠির কুতুবনগন মাদ্রাসায় রহস্যজনক অগ্নিকান্ডের তদন্ত দাবী
ঝালকাঠি শহরের কুতুবনগর মাদ্রাসায় রহস্য জনক অগ্নিকান্ডের ঘটনা তদন্ত পূর্বক প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করার ও মাদ্রাসার কতিপয় ছাত্রশিক্ষকের হয়রানির হাত থেকে রেহাই পাওয়ার দাবী জানিয়েছে প্রতিবেশী ভূক্তভুগী একটি পরিবার। গত ২৫ ডিসেম্বর রাত ৮ টায় মাদ্রাসার সুরক্ষিত ও তালাবদ্ধ একটি ভবনের দোতালায় রহস্য জনক আগুন লাগার বিষয়ে তাদের কে দায়ী করার ইঙ্গিত দিয়ে এক শিক্ষকের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে শংকিত অব: সেনাসদস্য কেরামত আলী হাং ও তার পরিবারটি ঝালকাঠি থানার পুলিশের কাছে এ দাবী জানান।
অব: সেনাসদস্য কেরামত আলী হাং ও তার পরিবার দাবী করেন, দীর্গ এক দশকের বেশী সময় ধরে কুতুবনগর মাদ্রাসা সংলগ্ন এলাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে তিনি বসবাস করে আসলেও সম্প্রতিক সময় তারা একটি স্বার্থন্বেষী ধর্ম ব্যাবসায়ী চক্রের কোপা নলে পরেন। তাকে ভিটামাটি থেকে উচ্ছেদ করতে চক্রটি নানা ভাবে হয়রানী, দূর্ভোগ ও ভোগান্তি ফেলে সেখান থেকে উৎখাত করতে তার হাটাচলার রাস্তা পর্যন্ত আটকে দেয় এবং কতিপয় মাদ্রাসা ছাত্র-শিক্ষক কেরামত আলী মারধর করে গুরুতর জখম করা সহ বসতঘর ভাংচুর করে।
যা নিয়ে ঝালকাঠি আদালতে ও থানায় একাধিক মামলা সহ জিডি দায়ের করা হলে উক্ত মামলায় এক মাদ্রাসা শিক্ষক হাজত বাস করেন। সম্প্রতি সে জামিনে বেড়িয়ে উক্ত মামলার ঘটনায় প্রতিশোধ নিতে উক্ত শিক্ষক আবুল হাসান ও তার সহযোগীরা মড়িয়া হয়ে ওঠে এবং পুনরায় আক্রামন করার জন্য নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হওয়ায় নির্যাতিত এ পরিবারটির শংকিত হয়ে পরেন। বর্তমানে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা নিরাপত্তা হীনতায় দিন কাটাচ্ছে বলে পুলিশ সুপার সহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে তদন্তের আবেদন জানিয়েছে। অব: সেনাসদস্য কেরামত আলী হাং ও তার পরিবার, প্রকৃত ঘটনা তদন্ত ও বিচার করতে ঝালকাঠি জেলা পরিষদ প্রশাসক, উপজেলা চেয়ারম্যান বা পৌর মেয়র যেই ন্যায় সঙ্গত উদ্ধোগ নিবে তা মেনে নিবেন বলে জানিয়েছেন।
সড়ক দুর্ঘটনায় আহত শংকর মল্লিককে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন
বরিশাল-খুলনা আঞ্চলিক মহাসড়কে ঝালকাঠির ষাটপাকিয়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় ১ ডিসেম্বর সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ কোম্পানীর এসআর শংকর মল্লিক (২৫) গুরুতর আহত হয়। আহতাবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে গুরুতর দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করে। ঢাকার গ্রীন রোডস্থ (কমফোর্ট হাসপাতালের বিপরীতে) ধানমন্ডি ক্লিনিকে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। দীর্ঘ ১ মাসের চিকিৎসায় আহতের স্বজনরা সহায়-সম্বল দিয়ে চিকিৎসা করিয়ে অর্থহীন হয়ে পড়েছে। এমতাবস্থায় চিকিৎসকরা বাচিয়ে রাখতে হলে ভারতে নিয়ে চিকিৎসার পরামর্শ দেন। যুবক শংকর মল্লিককে বাঁচাতে মানবিকভাবে দেশের বিত্তবানদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার অনুরোধ জানান পরিবারের পক্ষ থেকে। এজন্য ০১৭৫১৭২০৯২৭ (রাসেল) এই নম্বরে সাহায্য পাঠানো এবং যোগাযোগের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।
ঝালকাঠিতে কৃষকদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
ঝালকাঠিতে কেক কাটা ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে কৃষকদলের ৩৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় জেলা বিএনপি কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান খান বাপ্পি। জেলা কৃষক দলের সভাপতি রুস্তুম আলী চাষীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা কৃষকদলের সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মন্টু, জেলা বিএনপির যুববিষয়ক সম্পাদক রবিউল হোসেন তুহিন, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক এনামুল হক সাজু, জেলা মহিলাদল সাধারণ সম্পাদক মমতাজ বেগম, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ দেলোয়ার হোসেন, বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান সেলিম, জেলা সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম লিটন, বাচ্চু হাসান খান, কৃষক নেতা হাবিবুর রহমান মুন্সি, নাসির মৃধা, আব্দুর ছত্তার , মোঃ মানিক, আঃ হক। আলোচনা সভা শেষে কেক কাটার মধ্য দিয়ে কৃষকদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হয়।






মন্তব্য চালু নেই