মেইন ম্যেনু

বন্দুক উদ্ধার

ঘের নিয়ে বিরোধে দুইজন নিহত ।। তরণ দলের সভাপতিসহ ১০জন আটক

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার গাবুরায় ঘের নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে গোলাগুলি ও বোমাবাজিতে দুইজন নিহত হওয়ার ঘটনায় জেলা জাতীয়তাবাদী তরণ দলের সভাপতি সালাউদ্দিন লিটনসহ ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় সংঘর্ষে ব্যবহৃত একটি বন্দুকও উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ফের সংগঠিত হওয়ার সময় গাবুরা ইউনিয়নের লক্ষ্মীখালী গ্রাম থেকে অস্ত্রসহ তাদের হাতে নাতে আটক করা হয়। আটক সালাউদ্দিন লিটন ঘটনার মূল হোতা মজিদ মেম্বরের ছেলে। শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সংঘর্ষে দুইজন নিহত হওয়ার ঘটনায় ১০ জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের থানায় আনার পর বিস্তারিত বলা যাবে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুরে শ্যামনগর উপজেলার গাবুরায় ঘের নিয়ে বিরোধের জের ধরে ব্যাপক গোলাগুলি ও বোমাবাজির ঘটনায় আইজুল মোড়ল ও নুরুন্নবী বাশার নামে দুই জন নিহত এবং সাতজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ১৫ আহত হয়।
স্থানীয়রা জানান, কয়েক মাস আগে একই ঘের নিয়ে বিরোধের জের ধরে ওই এলাকার আসাদুল্লাহ গালিবকে হত্যা করে স্থানীয় মজিদ মেম্বরের লোকজন। এরই সূত্র ধরে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে গালিবের সমর্থকরা ওই ঘের এলাকায় গেলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় উভয়পক্ষই গুলিবর্ষণ ও বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেদের কর্তৃত্ব বজায় রাখতে ব্যাপক সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে আইজুল মোড়ল গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। পরে নুরুন্নবী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এছাড়া উভয়পক্ষের ৭ জন গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়।
+



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই