মেইন ম্যেনু

গুলশান হামলার তদন্ত শেষ করতে আরো সময় লাগবে : মনিরুল

গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার মামলায় তদন্ত শেষ করতে আরো বেশ কিছুদিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম এন্ড ট্র্যান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

শনিবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

মনিরুল ইসলাম বলেন, গুলশান হামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে হলেও মামলাটির তদন্ত কাজ শেষ করতে আরো বেশ কয়েকদিন সময় লাগবে। কারণ ঘটনায় জড়িত কোনো কোনো জঙ্গি এখনো ধরা পড়েনি।

তিনি বলেন, কুমিল্লায় গ্রেফতার হওয়া জঙ্গি আহমেদ আজওয়াদ ইমতিয়াজ তালুকদার ওরফে অমিকে ভালোভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। কারণ পুলিশের জঙ্গিবিরোধী অভিযানে নিহত নব্য জেএমবি নেতা তামিম চৌধুরীর সঙ্গে তার খুব ভালো যোগাযোগ ছিল।

এ সময় গুলশান হামলার প্রত্যক্ষদর্শী তাহমিদ হাসিব খানের যে কোন জায়গায় যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো বাধা নেই বলেও জানান মনিরুল ইসলাম। গুলশান হামলার ঘটনা তদন্তে পুলিশকে অসহযোগিতার অভিযোগে তাহমিদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল। সম্প্রতি সেই মামলা থেকে অব্যহতি পেয়েছেন তাহমিদ।

গত বছরের ১ জুলাই রাত নয়টায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের হাতে গুলশানের স্প্যানিশ রেস্টুরেন্ট হলি আর্টিসান আক্রান্ত হয়। হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ দেশি-বিদেশি ২২ নাগরিক নিহত হন। প্রায় ১২ ঘণ্টার ‘জিম্মি সংকট’ শেষ হয় সেনাবাহিনীর কমান্ডো অভিযান ‘অপারেশন থান্ডারবোল্ট’ দিয়ে।

ওই কমান্ডো অভিযানে পাঁচ জঙ্গি ও রেস্টুরেন্টের বাবুর্চি নিহত হন। অভিযান শেষে আক্রান্ত হোটেল থেকে উদ্ধার করা হয় হাসনাত করিম, তাহমিদ হাসিব খানসহ ৩২ জন জিম্মিকে।

তবে হলি আর্টিসানে জিম্মিদশার বিভিন্ন ফাঁস হওয়া ভিডিও চিত্রে হাসনাত করিম ও তাহমিদকে রহস্যজনকভাবে চলাফেরা করতে দেখা যায়। এসময় জঙ্গিদের সাথে তাদের বেশ ঘনিষ্টভাবে কথা বলতেও দেখা যায়। রহস্যজনক আচরণের কারণে তাদের গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। ৩ আগস্ট রাতে হাসনাত করিম এবং তাহমিদ হাসিব খানকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে তাহমিদকে ১৪ দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ জানায়, গুলশান হামলার ঘটনায় তার কোনো সম্পৃক্ততার তথ্য পাওয়া যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই