মেইন ম্যেনু

গানে রঙে ফুলে বসন্ত বরণ

ঋতুর পরিক্রমায় শীত চলে গেছে, এসেছে ঋতুরাজ বসন্ত। ভোরের আবছা অন্ধকারের ঘোর কাটার আগেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার বকুলতলা প্রাঙ্গণে বসন্ত বরণে মিলিত হয় নগরবাসী।

বাসন্তী রঙের শাড়ি, হলুদ রঙের পাঞ্জাবি আর রঙ বেরঙেয়ের ফুলের সাজসজ্জা উৎসব প্রাঙ্গণকে নানামাত্রিকতায় বর্ণিল করে তোলে। প্রিয়জনের হাত ধরে আসা মানুষগুলো বসন্ত উৎসবের গানে মেতে উঠে।

বসন্ত উৎযাপন পরিষদ আয়োজিত উৎসবের এক একটি গান মনে করিয়ে দিচ্ছিল বাঙালির হাজার বছরের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে। শুরুতেই দেশজ বাদ্য যন্ত্র ‘সারেঙ্গী’ পরিবেশন করেন শিল্পী মতিয়ার।

তারপর শিল্পী প্রিয়াংকা গোপ রাগ বাসন্তী পরিবেশন করে জানান দেন উৎসবটি বসন্তের। এর পর একে একে চলে বসন্ত বন্দনার বিভিন্ন পরিবেশনা।

ফাল্গুনের সাজ

বুলবুল একাডেমী কাইয়ুম চৌধুরীর পরিচালনায় ‘ওরে আয়রে…’ গানের সঙ্গে সমবেত সংগীত পরিবেশনে অংশ নেন ঝুনা চৌধুরী, নীলা চাকলাদার, অনিন্দিতা আরিফ চৈতি প্রমূখ।

‘তোমার হাওয়ায় হাওয়া খুলেছে দ্বার, দক্ষিণ হাওয়ায় খুলেছে দ্বার…’ গানে সমাবেত নৃত্য পরিবেশন করে ‘স্বপ্ন বিলাস নৃত্য’।

সাংস্কৃতিক সংগঠন নটরাজ পথভোলা ‘এক পথিক এসেছি, তোমার আনন্দ এই এলো দ্বারে ওগো পুরবাসী…’ গানে নৃত্য পরিবেশন করে।

এ ছাড়াও স্পন্দন, বহ্নিশিখা, নবচেতনা ধ্রুপদ কলাকেন্দ্র, সুরের ধারা, সুরসপ্তক প্রভৃতি দলগুলো একক ও সমবেত গানে অংশ নেয়।

Bokultola-th-thereport24

একক সংগীত পরিবেশন করেন সালমা আকবর, শিল্পী সুজিত মোস্তফা, ইন্দ্রানী কর্মকার, তাসমিয়া ফরহাদ তোবা, ভারত থেকে আগত শিল্পী অভিজিৎ চট্টপাধ্যায়, তিন্নি দত্ত, সাধুবেন্দ্র দাস শর্মা, উদয় সেন গুপ্ত।

একক আবৃত্তি করেন ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়, লায়লা আফরোজ, কাকলী, বেলায়েত হোসেন।

এর আগে অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে বসন্ত আলোচনা পর্বে চলমান রাজনৈতিক সহিংসতায় নিহতদের স্মরণে উপস্থিত সকলে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন।

Bokultola-fo-thereport24

আলোচনা পর্বে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী বলেন, ‘বাঙালি জাতিগতভাবে বিদ্রোহী। দীর্ঘকাল থেকে এখানকার জাতিসত্বার মানুষগুলো বারবার অন্যায়ের প্রতিবাদ করে এসেছে। আর এ কাজটি করতে গিয়ে কখনও হোঁচট খেয়েছে কিন্তু থেমে থাকেনি। নববর্ষ, বসন্ত উৎসব, নবান্ন উৎসবের মতো দেশজ উৎসবগুলো মানুষকে এসব প্রতিবাদ করতে অনুপ্রেরণা যোগায়। নিজেদের শাণিত করে নেয়।’

Bokultola-fi-thereport24

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কাজল দেবনাথ, উৎসব উৎযাপন কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মানাজার চৌধুরী সুইট, সহ-সভাপতি স্থপতি শফিউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণে মাহমুদ সেলিমের কণ্ঠে গীত জাগো জাগো গানের সঙ্গে আবীর রঙ ছিটিয়ে শোভাযাত্রা শেষ করে শুরু হয় বসন্ত আড্ডা। এতে কামাল লোহানী, লুভা নাহিদ চৌধুরী, মাহমুদ সেলিম, স্থপতি শফিউদ্দিন আহমেদ, মানজার চৌধুরী সুইট প্রমুখরা অংশ নেন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই