মেইন ম্যেনু

কোরবানীর পশুর চামড়ার মূল্য নির্ধারণ, গতবারের চেয়েও কম!

কোরবানির পশুর চামড়ার মূল্য নির্ধারণ করেছে চামড়া ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ ফিনিশ লেদার অ্যান্ড ফুটওয়ার এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন।

শুক্রবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে বাংলাদেশ ফিনিশ লেদার অ্যান্ড ফুটওয়ার এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মূল্য নির্ধরণের ঘোষণা দেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আবু তাহের।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবার ঢাকায় লবণযুক্ত গরুর চামড়া প্রতি বর্গফুটের মূল্য ৭০ থেকে ৭৫ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা দরে কেনা হবে।

এছাড়া লবণযুক্ত মহিষের চামড়ার মূল্য প্রতি বর্গফুট ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, খাসির লবণযুক্ত চামড়ার মূল্য ৩০ থেকে ৩৫ টাকা এবং বকরির লবণযুক্ত চামড়ার মূল্য ২৫ থেকে ৩০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এদিকে সরকারের নির্দেশনা মেনে চামড়া ব্যবসায়ীরা কোরবানির পশুর চামড়ার সংগ্রহের মূল্য নির্ধারণ করলেও তা গত বছরের তুলনায় বেশ কম দাবি সংশ্লিষ্টদের।

গত বছর সরকার নির্ধারিত দাম অনুযায়ী ব্যবসায়ীরা ঢাকায় প্রতি বর্গফুট লবণযুক্ত গরুর চামড়া ৮৫-৯০ টাকায় কেনেন। আর ঢাকার বাইরে তা ৭৫-৮০ টাকায় কেনা হয়।

সারাদেশে প্রতি বর্গফুট খাসির চামড়ার দাম গত বছর ছিল ৫০-৫৫ টাকা। বকরির চামড়া ৪০-৪৫ টাকা এবং মহিষের চামড়া ৪০-৪৫ টাকায় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল।

গত বছর সরকার দাম ঠিক করে দিলেও এবার বাণিজ্যমন্ত্রীর নির্দেশে চামড়া ব্যবসায়ীদের তিন সংগঠন বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ হাইড অ্যান্ড স্কিন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন এবং বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়ার এক্সপোটার্স অ্যাসোসিয়েশন মূল্য নির্ধারণ করেছে।






মন্তব্য চালু নেই