মেইন ম্যেনু

‘কর্মহীন’ ট্রাইব্যুনাল চলতে পারে না

‘মামলা ছাড়া ট্রাইব্যুনাল চলতে পারে না। এখানে কাজ নেই কর্ম নেই, এভাবে ট্রাইব্যুনাল চলে না।’ বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যনাল-১।

একইসময়ে মামলার সাক্ষীকে যথাসময়ে ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত করা ও সাক্ষীদেরকে সাক্ষ্যগ্রহণের বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীদেরকে (প্রসিকিউটর) সতর্কও করেন ট্রাইব্যুনাল।

বুধবার ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল জব্বারের বিরুদ্ধে ১৩তম সাক্ষীকে উপস্থিত করার জন্য পাঁচদিনের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে দুই সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-১ এ কথা বলেন।

এসময় প্রসিকিউটর জাহিদ ইমামকে উদ্দেশ্য করে ট্রাইব্যুনাল বলেন, ‘ট্রাইব্যুনালে এভাবে ধীরগতিতে মামলা চলতে পারে না। এছাড়াও মামলার একটি সাক্ষী সবগুলো অভিযোগের বিষয়ে বললে মামলা পরিচালনায় দেরি হয়। একজন সাক্ষী ১০টি চার্জ করে। তাদেরকে অভিযোগের ওপর নির্দিষ্টকরণ করা প্রয়োজন।’

পরে প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম ট্রাইব্যুনালকে বলেন, ‘মামলা পরিচালনায় আমরা কোনো সময়ক্ষেপণ করছি না। এটুকু সময় আমাদের প্রয়োজন। এর মধ্যেই আমরা সব শেষ করে দেবো।’

ট্রাইব্যনাল বলেন, ‘নেক্সট/শেষ, এসব শেষের আর শেষ হয় না।’

পরে মামলার পরবর্তী সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ২০ অক্টোবর দিন নির্ধারণ করেন ট্রাইব্যুনাল।

তখন ট্রাইব্যুনালে আরো উপস্থিত ছিলেন চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু, প্রসিকিউটর আবুল কালাম আযাদ। অপরদিকে আসামিপক্ষে রাষ্ট্রকর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত আইনজীবী ব্যারিস্টার মীর সারওয়ার হোসেন ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই