মেইন ম্যেনু

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর মন্তব্য

এ কে খন্দকার ও লতিফ বয়স্ক প্রতিবন্ধী

এ কে খন্দকার ও লতিফ সিদ্দিকীকে বয়স্ক প্রতিবন্ধী বলে মন্তব্য করেছেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন।
রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে জাতীয় তৃণমূল প্রতিবন্ধী সংস্থা আয়োজিত ‘সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচিতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অর্ন্তভুক্তকরণ’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনারে তিনি এ মন্তব্য করেন।
প্রমোদ মানকিন বলেন, ‘ইদানিং একটা প্রতিবন্ধী দেখা দিয়েছে বয়স্ক প্রতিবন্ধী। ‘৭১-র ভিতরে বাইরে’ বইয়ে আমরা বয়স্ক প্রতিবন্ধী দেখেছি। উনি নাকি (এ কে খন্দকার) ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণে জয় বাংলা শোনেন নাই। বয়স্ক প্রতিবন্ধিতার কারণে তার এই মতিভ্রম হয়েছে। এদিকে লতিফ সিদ্দিকীও বয়স্ক প্রতিবন্ধীতে আক্রান্ত। এ কারণে তিনি ধর্ম সর্ম্পকে এ ধরনের কথা বলেছেন।’
তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধীদের সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও পারিবারিক কাজে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে সংযুক্ত করে সোনার বাংলা গঠন করতে হবে। কারণ আপনারা জানেন সুযোগ দিলে গোবরেও পদ্মফুল ফোটে।’
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার প্রতিবন্ধীদের ব্যাপারে বেশ সচেতন। প্রধানমন্ত্রী একজন সত্যিকারের দেশপ্রেমিক। তিনি সকলকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশকে একটি সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরবেন।’
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন জাতীয় তৃণমূল প্রতিবন্ধী সংস্থার অ্যাডভোকেসি অফিসার শামীমা আক্তার।
সেমিনারটির সভাপতিত্ব করেন জাতীয় তৃণমূল প্রতিবন্ধী সংস্থার সভাপতি আব্দুল হাই। এছাড়া অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ডিজ্যাবিলিটি বিশেষজ্ঞ ড. আনিসুজ্জামান, সিবিএম এর প্ল্যানিং অ্যান্ড ডকুমেন্টশন অফিসার ফাহমিদা খান, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম ম্যানেজার নাজরানা ইয়াসমিন হীরা, এডিডি ইন্টারন্যাশনালের কান্ট্রি ডিরেক্টর শফিকুল ইসলাম, জাতীয় তৃণমূল প্রতিবন্ধী সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম সরদার প্রমুখ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই