মেইন ম্যেনু

ইফতারে চিড়া পাকোড়া-আলু পাকোড়া

সিয়াম সাধনার মাস রমজান। রমাজান মাসে মাগরিবের আযানের সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় নানা আয়োজনে ইফতার। খেজুর, শরবত, পিঁয়াজু, বেগুনী, ছোলা, মুড়িসহ নানা খাবার দিয়ে ইফতার করা হয়। স্বাদের বৈচিত্র্য আনতে ইফতারের জন্য বানিয়ে ফেলতে পারেন চিড়ার পাকোড়া ও আলুর পাকোড়া। চিড়ার পাকোড়া ও আলুর পাকোড়া বানানো যেমন সহজ, স্বাদও তেমনি অনন্য।

চিড়া পাকোড়া

যা যা লাগবে: চিড়া ২ কাপ, ময়দা আধা কাপ, চালের গুঁড়ো আধা কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, কাঁচামরিচ কুচি ৩ টেবিল চামচ, চিনি ১ চা চামচ, ডিম ১টা, লবণ স্বাদমতো, তেল পরিমাণমতো।

যেভাবে তৈরি করবেন: প্রথমে চিড়া ভালো করে ধুয়ে পানি ঝড়িয়ে নিন। চিড়া, ময়দা, চালের গুঁড়ো, পেঁয়াজ কুচি, কাঁচামরিচ কুচি, লবণ, চিনি ও ডিম দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। কড়াইতে তেল দিয়ে গরম করে নিন। তেল গরম হলে মাখানো চিড়ার মিশ্রণ গোল গোল করে তেলে দিয়ে লাল করে ভেজে নিন। ইফতারে সস দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

আলু পাকোড়া
২২২
যা যা লাগবে: আলু দেড় কাপ, ময়দা বা কর্ণ ফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ, ডিম ১ টি, ধনে পাতা কুচি ১ টেবিল চামচ,কাঁচা মরিচ কুচি ৫ থেকে ৬টি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ,লবণ স্বাদ মত, ভাজা জিরার গুঁড়ো ১/২ চা চামচ, টেস্টিং সল্ট ১/২ চা চামচ, বেকিং পাউডার ১/২ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন: আলুর খোসা ছাড়িয়ে গ্রেটার দিয়ে ভালো করে ঘষে মিহি ঝুরি করে নিন। যাদের গ্রেটার নেই তারা আলু আধা সিদ্ধ করে কুচি করে নিন। গ্রেট করা কাঁচা আলু খুব ভালো করে পানিতে ধুয়ে চিপে চিপে বাড়তি পানি ফেলে দিন। কর্ণ ফ্লাওয়ার ছাড়া বাকি সব উপকরণ দিয়ে আলু মেখে নিন। এরপর একটু একটু করে ময়দা বা কর্ণ ফ্লাওয়ার মেশান। হাত দিয়ে বড়ার আকার করা যায় এমন আঠালো হলেই ময়দা কিংবা কর্ণফ্লাওয়ার মেশানো বন্ধ করুন। তেল মাঝারি আঁচে গরম করে নিন। পিঁয়াজুর আকারে পাকোড়া ছেড়ে অল্প আচে লালচে সোনালি করে ভেজে তুলুন।






মন্তব্য চালু নেই