মেইন ম্যেনু

আপনার চাইতেও অন্যের সাথে বেশি সময় কাটান ভালোবাসার মানুষটি ?

নারীদের সবচাইতে বেশি অভিযোগ থাকে ভালোবাসার মানুষটির সময় কাটানো নিয়ে। বেশীরভাগ নারীই বলবেন প্রেমিক বা স্বামী তাকে একেবারেই সমত দিতে পারেন না। স্বামী বা প্রেমিক পুরুষটির সব দিকে দেয়ার মতো সময় থাকলেও নিজের প্রেমিকা বা স্ত্রীর ব্যাপারে এসে একটু তালগোল পাকিয়ে যায় সব।কাজের জন্য সময় এবং বন্ধুবান্ধবের সাথে আড্ডা দেয়ার জন্য সময় থাকলেও পুরুষের নিজের প্রেমিকা বা স্ত্রীকে দেয়ার মতো সময়ের অভাব পড়ে যায় অনেক সময়।

এতে করে মনে মনে একটু অভিমানই করে বসেন প্রেমিকা/স্ত্রী। এবং সম্পর্কে একটু হলেও তিক্ততা এসে ভর করে। ঝগড়াঝাঁটি এবং হতে পারে শুধুমাত্র একারণেই ব্রেকআপ। কিন্তু অভিমান করে কি আর তাকে ফেরানো যায়? এর চাইতে বরং জেনে নিন কি করা উচিত আপনার যদি বন্ধুবান্ধবের সাথেই তিনি বেশি সময় কাটাতে যান।

১) প্রথমেই সঙ্গীর সময় কাটানোর ধরণ এবং বিষয়টি ভালো করে বুঝে নিন। তিনি কি সত্যিই নিজের বন্ধুদের সাথে বেশি সময় কাটাতে পছন্দ করেন বলেই সেখানে যান নাকি আপনার সাথে কোনো সমস্যা রয়েছে তা বুঝার চেষ্টা করুন। এবং সে হিসেবেই কাজ করুন।

২) প্রেমিক/স্বামী বন্ধুদের সাথে বেশি সময় কাটাতে পছন্দ করেন কারণ তাদের পছন্দ অনেক বেশিই মেলে। তাই যদি আপনি চান তিনি আপনার সাথে বেশি সময় কাটান তাহলে এমন কাজ করুন যেটা তার পছন্দের। দুজনে বসে এমন কাজ করুন যা দুজনেই উপভোগ করেন। এতে করে একসাথে বেশি সময় কাটানো হবে।

৩) যদি আপনার সঙ্গী বন্ধুদের সাথেই বেশি কমফোর্টেবল থাকেন তাহলে আপনি তার বন্ধুদের সাথেই বন্ধুত্ব করে নিন। এতে করে দুজনের একসাথে সময়ও কাটবে এবং বন্ধুবান্ধব নিয়ে যে সমস্যার সৃষ্টি হয় তা একেবারেই হবে না।

৪) নিজেই এগিয়ে গিয়ে কথা বলুন সঙ্গীর সাথে। শুধু অভিমান করে চুপ করে বসে থাকলে কোনো সমস্যার সমাধান হবে না। আপনার সঙ্গীর উপর অবশ্যই আপনার কিছুটা হলেও অধিকার আছে। সেই অধিকার থেকে হলেও নিজের জন্য সময় বের করার ব্যাপারটি বুঝিয়ে বলুন সঙ্গীকে।

৫) নিজেকে ব্যস্ত করে ফেলুন। সঙ্গী যদি নিজের কাজে ব্যস্ত বেশি থাকেন, বন্ধুদের সাথেই বেশি সময় কাটান তাহলে নিজেকে ব্যস্ত করে ফেলুন। এতে করে তিনি নিজের ভুল বুঝতে পারবেন হয়তো। আর আপনিও যখন ব্যস্ত থাকবেন তখন আপনারও অভিমান কম হবে।

৬) ছাড় দিন কিছুটা। আপনি যদি চান সব সময় আপনার সঙ্গী আপনার সাথেই সময় কাটাবেন সেটিও কিন্তু সঠিক হবে না। সঙ্গীকে কিন্তু তার নিজের বন্ধুবান্ধবের সাথে সময় কাটাতে দিতে হবে কারণ আপনার যেমন নিজের বন্ধুবান্ধব রয়েছে তেমনই তারও। তাই দুজনকেই বুঝতে হবে, দুজনকেই ছাড় দিতে হবে।

সূত্রঃ এলিট ডেইলি ও উইকি হাও






মন্তব্য চালু নেই