মেইন ম্যেনু

অভিযাত এলাকার নারীদের বডি ম্যাসাজের জন্য শতাধিক তরুনের বিজ্ঞাপন ( ভিডিও )

বডি ম্যাসাজ একটি প্রাচীন প্রথা। সুপ্রাচীন কাল থেকে বাংলাদশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই ম্যাসাজের মাধ্যমে মানুষ শারিরীক বেদনা প্রশমন করে। আমাদের দেশের গ্রাম শহরে ব্যাথার জন্য যেমন মালিশ করা হয়, শরীরের বিভিন্ন স্থানে ম্যাসাজ দেয়া হয় তেমনি বিদেশেও এগুলো প্রচলিত। তবে ইদানিং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই ম্যাসাজ এখন একটি লাভজনক শিল্প। বিশ্বের নামী দামী টুরিস্ট স্পটে মানুষ বেড়াতে যায়, অনেকের আবার আগ্রহ থাকে সেখানকার বডি ম্যাসাজের দিকে। সুন্দরী তরুন তরুনীদের নিপূন হস্ত চালনায় অনেকে প্রশান্তি খুঁজে পান। যৌনতারও ছড়াছড়ি থাকে সেখানে।

এই যৌনতা নির্ভর ম্যাসাজ বাংলাদেশের প্রথাবিরোধী হলেও এখন নামে বেনামে চলে বিভিন্ন পাঁচ তারকা হোটেলে, বিভিন্ন অভিযাত এলাকার বাসাবাড়ীতে। মাঝে মাঝে পুলিশের অভিযানে এমন বিভিন্ন তথ্য বেরিয়ে আসে। ধরা পড়ে তরুন তরুনী। বিউটি সেলুন, জেন্টস পার্লারের নামে আছে এমন অনেক বডি ম্যাসাজ সেন্টার। আওয়ার নিউজে ইতিপূর্বে এমন কিছু সংবাদও প্রকাশিত হয়েছে। একুশে টেলিভিশনের ক্যামেরায় টট্টগ্রামের এমন কিছু কর্মকান্ডের প্রতিবেদনও হয়েছে।

তবে সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হল কয়েক বছর ধরে এই ম্যাসাজ ব্যাক্তিগতভাবে করানোর চেষ্টা চলছে। শতাধিক তরুন গুলশান, বনানী, বারিধারা, ধানমন্ডি, উত্তরার নারীদের বাসায় গিয়ে বা হোটেলে ম্যাসাজ দেয়ার জন্য ইন্টারনেটের বিভিন্ন সোস্যাল ফোরাম ব্যবহার করছে। সেখানে তাদের মোবাইল নাম্বার, যোগাযোগের মাধ্যম, নিয়ম কানুন সব বলে দেয়। এমনই একটি সাইট topix.com এর ঢাকার ফোরামগুলো। এই সাইটের ফোরাম অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে এমন সব চাঞ্চল্যকর বিজঙাপন। বিভিন্ন পাতায় এসব তরুন নামে বেনামে মোবাইল নাম্বার দিয়ে দিয়েছে চটকদার সব বিজ্ঞাপন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন ইন্টারনেটের এমন যথেচ্ছ ব্যবহার আমাদের সামাজিক জীবনে মারাত্মক প্রভাবে ফেলবে। এসব কর্মকান্ড আমাদের সামাজিক জীবন, নীতি, নৈতিকতার জন্য ক্ষতিকর।

এখন দেখুন বডি ম্যাসাজের উপর তৈরি একটি ফানি শর্টফিল্ম

একুশে টিভির অনুসন্ধানী প্রতিবেদন দেখুন বাংলাদেশে কিভাবে এই অনৈতিক কর্মকান্ড বিস্তার লাভ করছে






মন্তব্য চালু নেই