মেইন ম্যেনু

হ্যাপি ইস্যুতে রুবেলের ‘না’

রোববার সকালে হঠাৎ মিরপুর স্টেডিয়ামে রুবেল হোসেন। মিরপুরে তার আসতে মানা নেই। জাতীয় দলের ক্রিকেটার। যখন চাইবেন, তখনই মিরপুর স্টেডিয়ামে আসতে পারবেন। কিন্তু হঠাৎ মিরপুর স্টেডিয়ামে রুবেলকে দেখে বিসিবির সিকিউরিটি গার্ডরাও অবাক।

গত ১৩ ডিসেম্বর হ্যাপি রুবেলের বিরুদ্ধে ‘ধর্ষণ’ মামলা করেন। এরপর থেকেই রুবেল ‘টক অপ দ্য টাউন’।

অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির ইস্যুতে প্রায় নয় দিন ধরে মিডিয়ার আড়ালে ছিলেন রুবেল হোসেন। মোবাইল ফোনও বন্ধ ছিল তার। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগও বন্ধ রাখেন।

রোববার হঠাৎ করেই মিরপুর স্টেডিয়ামে জিম করেন বাগেরহাটের এই পেসার। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে মাঠে নেমে পড়েন। ফিটনেস ধরে রাখার পাশাপাশি অনুশীলনও করেন রুবেল।

প্রকাশ্যে চলে আসায় স্বাভাবিকভাবেই রুবেল হোসেনকে ঘিরে ক্রীড়া সাংবাদিকদের আগ্রহ ছিল চোখে পড়ার মত। কিন্তু হ্যাপি ইস্যুতে মুখে তালা এঁটে ছিলেন রুবেল। হ্যাপি ইস্যু বাদে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হন তিনি। বিভিন্ন প্রশ্নের সঙ্গে হ্যাপি ইস্যু নিয়ে প্রশ্ন করলেও এড়িয়ে যান। সাফ জানিয়ে দেন, ‘হ্যাপি ইস্যুতে কোনো কথা বলবেন না।’

এদিকে হ্যাপি ইস্যু নিয়ে কোনো কথা না বললেও রুবেল হোসেন বিশ্বকাপে খেলার ব্যাপারে আশাবাদী। রুবেল বলেন, ‘আমি আশা করি দলে থাকতে পারব। জিম্বাবুয়ে সিরিজে মোটামুটি ভালই পারফর্ম করেছি। প্রিমিয়ার লিগে বেশ কিছু ম্যাচে খেলেছি। সেখানেও বেশ ভাল বল হয়েছে। আমি চেষ্টা করব সুপারলিগে ভাল কিছু করার, যাতে করে দলে জায়গাটা পাকাপোক্ত করতে পারি।’

নিজের প্রস্তুতি সম্পর্কে এই পেসার বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া-নিউ জিল্যান্ডের উইকেট থেকে বাড়তি বাউন্স পায় বোলাররা। সেখানে পেসারদের ভূমিকাই বেশি। আমার বিশ্বাস, আমি সেভাবেই প্রস্তুতি নিতে পারব। আগামী মাসে ক্যাম্প শুরু হবে। সেখানে আমার প্রস্তুতিটা যেমনটা হওয়ার দরকার তেমনেই হবে।’



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই