মেইন ম্যেনু

হাসপাতালে নারী দেহ ছিঁড়ে খেল কুকুর!

ভারতের মধ্যপ্রদেশের রাজগড়ে সরকারি হাসপাতালের কুকুরে ছিঁড়ে খেল এক নারী রোগীর দেহ। হাসপাতালের পেছনে পরিষ্কার করতে গিয়ে সোমবার এ মর্মান্তিক ঘটনা দেখতে পান এক পরিষ্কারকর্মী। জানা গেছে, ৭০ বছরের ওই রোগী ২২ মার্চ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তারপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। মৃতের শাড়ি ও পার্স দেখে পরিচয় জানতে পারে পুলিশ। মধ্যপ্রদেশের গুনা জেলার কুম্ভর্জ গ্রামের বাসিন্দা বিসমিল্লাহ উরস উৎসব উপলক্ষ্যে রাজগড়ে এসেছিলেন সেই বৃদ্ধা।

বৃদ্ধার নাতি মোহাম্মদ নমিন জানিয়েছেন, একদিন থাকার কথা থাকলেও বেশ কয়েকদিন সেখানে থেকে যান। কিন্তু তার পরেও বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকেরা তার খোজ শুরু করেন। শেষে রাস্তার ধারে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। তারাই রাজগড় হাসপাতালে ভর্তি করেন সেই বৃদ্ধাকে। ২২ মার্চ হাসপাতালে থাকলেও তারপর থেকে আর বিসমিল্লাহর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

কোতয়ালি থানার ইনচার্জ মুকেশ গৌর জানিয়েছেন, হাসপাতাল থেকে রোগী নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার ঘটনা নাকি কর্তৃপক্ষ জানতেন না। কেউ এ নিয়ে মাথাও ঘামাননি। তার দিন কয়েক পর রবিবার বিকেলে হাসপাতালের এক পরিষ্কারকর্মীই তার ক্ষতবিক্ষত দেহ দেখতে পান। কুকুরে দেহের অনেকটাই খেয়ে ফেলেছে। অবস্থা এমনই যে, ময়নাতদন্তও সম্ভব নয়। কাজেই কুকুরের আক্রমণের আগে তিনি বেঁচে ছিলেন কি-না সে বিষয়েও সঠিক তথ্য জানা যাচ্ছে না।






মন্তব্য চালু নেই