মেইন ম্যেনু

সুন্দর ও চমকপ্রদ কিছু দ্বীপের কথা

পৃথিবী জুরে রয়েছে হাজার হাজার দ্বীপ। এমনকি অনেক দ্বীপ রাষ্ট্রও রয়েছে। দ্বীপের সৌন্দর্য সম্পর্কে কম বেশি আমরা সবাই জানি। কিন্তু পৃথিবীতে এমন কিছু দ্বীপ রয়েছে যেগুলো মানুষকে চমকৃত করে। মানুষকে বার বার টেনে নিয়ে যায় নিজের কাছে। সেখানকার আবহাওয়া, প্রাণী, রহস্য, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য পৃথিবীতেই এনে দেয় স্বর্গীয় নিসর্গ। চলুন জেনে নেই এমনি সুন্দর ও চমকপ্রদ কিছু দ্বীপ সম্পর্কে:

গালাপাগোস দ্বীপ:
কয়েকটি আগ্নেয় দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে গঠিত গালাপাগোস দ্বীপ বহু রহস্যের আধার। এখানে রয়েছে বিরল প্রজাতির অসংখ্য প্রাণী। এই প্রাণীবৈচিত্র্য বিস্ময় জাগায় সমুদ্রনিবাসীদের। অনেকেই দ্বীপটিকে চেনে জাদুদ্বীপ বা মায়াদ্বীপ বলে। অদ্ভুত আর বিস্ময়ের অনন্য উপস্থাপনা গালাপাগোস দ্বীপ।

সিসিলি:
ইটালির অন্তর্ভুক্ত ভূ-মধ্যসাগরের সবচেয়ে বড় দ্বীপ সিসিলি। নীলাভ জলরাশি, নরম বালুর সৈকত ও দ্বীপের মনোরম পরিবেশ পৃথিবী বিখ্যাত। দ্বীপের অন্যতম আকর্ষণ হলো আগ্নেয়গিরি মাউন্ট এটনা। ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৩ হাজার ৩৫০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত এই আগ্নেয়গিরিটি ইউরোপে সর্বোচ্চ। মাউন্ট এটনা পৃথিবীর সক্রিয় আগ্নেয়গিরিগুলোর একটি। পর্যটকদের পছন্দের তালিকায় এটি রয়েছে তৃতীয় স্থানে।

সেন্ট বার্থ আইল্যান্ড:
পুরো নাম সেন্ট বার্থেলেমি আইল্যান্ড। সংক্ষেপে সেন্ট বার্থ। ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের সবচেয়ে ব্যযবহুল ও অভিজাত দ্বীপটি এক সময় ফ্রান্সের দখলে ছিলো। দ্বীপটির নাম ‘বার্থেলেমি’ ও ফরাসি। বিখ্যাত ও বিত্তবানদের শ্যাম্পেন পানের আসর হিসেবেই এটির খ্যাতি। দ্বীপের নির্জন সাদা বালির সৈকত ও ফিনফিনে বাতাস পর্যকটকদের মনে আনে প্রশান্তি।

বেল্যারিক আইল্যান্ডস:
ইবিজা, মেজরকা, মেনরকা এবং ফরমেন্তেরা। পশ্চিম ভূ-মধ্যসাগরের এই ৪টি দ্বীপ নিয়ে স্পেনের বেল্যারিক দ্বীপমালা। প্রতিটি দ্বীপের রয়েছে স্বতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্য। উদ্দাম নাইট ক্লাবের জন্য ইবিজা বিখ্যাত। শান্ত পরিবেশ ও গোপনীয়তার জন্যও এই দ্বীপের কদর রয়েছে। রূপালি পর্দার তারকাজুটিদের গোপন অভিসারের আদর্শ জায়গা এটি। নয়নাভিরাম সৈকত, সবুজের সমাহার ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যগুণে অন্য ৩টি দ্বীপও অনন্য।

সিশ্যালস:
আফ্রিকা মহাদেশের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত ১৫৫টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত দ্বীপরাষ্ট্র সিশ্যালস। ভারত মহাসাগরের এই দ্বীপমালায় কিছু কিছু জায়গায় এখনও মানুষের পা পরেনি। সিশ্যালস ভ্রমণ মানেই নিঃশ্বাস বন্ধ হওয়ার মতো প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগের সুযোগ। এখানে সৈকতের পাশে রয়েছে সুউচ্চ প্রাচীন নারকেল ও পাম গাছের সারি। অবাক করার মতো তথ্য হলো, মাত্র ১৭৭ বর্গমাইলের এই ভূ-খণ্ডেও ইউনেস্কো স্বীকৃত ২টি ওয়ার্লড হেরিটেজ সাইট রয়েছে।

সূত্র: টপড্রিমার।






মন্তব্য চালু নেই