মেইন ম্যেনু

সিরাজগঞ্জে দেহ ব্যবসার অভিযোগে ৮ নারীর দণ্ড

সিরাজুল ইসলাম শিশির, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জ শহরের নাফিস আবাসিক হোটেলে দেহ ব্যবসার অভিযোগে আট নারীকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ব্রেনজন চাম্বুগং এ আদেশ দেন।

এর আগে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে শহরের বাজার স্টেশন এলাকায় নাফিস আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে দেহ ব্যবসার অভিযোগে আট নারীকে আটক করে পুলিশ।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, শহরের রেলওয়ে কলোনী মহল্লার আবু বক্কার সিদ্দিকীর স্ত্রী রোজিনা খাতুন (৩০), দত্তবাড়ী মহল্লার মঞ্জুর হোসেনের স্ত্রী পারভীন খাতুন (২৪), সদর উপজেলার পিপুলবাড়ীয়া গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে রাশিদা খাতুন (৩৪)।

কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট গ্রামের আব্দুল বারেকের স্ত্রী আলো খাতুন (৩০), সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদ শেখের মেয়ে কাজল রেখা (২৬), রায়গঞ্জ উপজেলার হাটপাঙ্গাসী গ্রামের কাওছারের স্ত্রী ফরিদা খাতুন (৩৫) একই উপজেলার নিমগাছী এলাকার আবুল হোসেনের স্ত্রী রতœা খাতুন (২০), ও টাঙ্গাইল সদর উপজেলার আকলিমা খাতুন (৩০)।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আব্দুল্লাহ আল মামুন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, শহরের নাফিস হোটেলে দীর্ঘদিন ধরে অসামাজিক কাজ চলে আসছিল।

এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দুপুরে নাফিস হোটেলে অভিযান চালিয়ে ওই আট জন পতিতাকে আটক করা হয়। আটককৃতদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাদের ১৫ দিনের সাজা দেন। হোটেলটি বন্ধ ও মালিকের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।






মন্তব্য চালু নেই