মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরায় ওয়াজ মাহফিলের আড়ালে জামায়াতের কমিটি গঠন!

বাইরে ছিল মাহফিলের জাঁকজমক আয়োজন, ভেতরে নিজেদের জেলা কমিটি গঠনের গোপন কার্যক্রম। কিন্তু সুনিপুণ সতর্কতা আর অভিনব কায়দায় সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সাহাপুরে সম্পন্ন করা সেই গোপনকাজের খবর আর গোপন থাকেনি। সাতক্ষীরা জেলা জামায়াতের এই অপকৌশল সম্পর্কে জেনে যায় এলাকাবাসী। যদিও জেলার দুই শীর্ষ গোয়েন্দা সংস্থা প্রায় ১৮ দিন পর ঘটনাটি নিশ্চিত করেছে। মাহফিলের আড়ালে জেলা জামায়াতে কমিটি গঠন হওয়ায় জেলায় নতুন করে শুরু হয়েছে আলোচনা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, গত পয়লা ফেব্রুয়ারি তালা উপজেলার দক্ষিণ সাহাপুর জামে মসজিদের আয়োজনে ইসলামী মাহফিলের আয়োজন করা হয়। মাহফিলের আড়ালে জেলার সাতটি উপজেলার জামাতের আমির ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও জেলা জামায়াতের ঊর্ধ্বতন নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া উল্লেখযোগ্য নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জামাতের রোকন হাফেজ রবিউল বাসার, সাবেক সেক্রেটারি নুরল হুদা, মাওলানা গফফার ও রফিকুল ইসলাম, শিবিরের জেলা সভাপতি, পৌর শিবিরের সভাপতিসহ ৩০-৩৫ জন নেতাকর্মী। গোপন সম্মেলনে জামাতের জেলা কমিটি গঠন করা হয়।

সূত্র জানায়, জেলা জামাতের রোকন রয়েছে ২ হাজার ৩০০ জন। জামাতের কর্মী রয়েছে প্রায় ১৩ হাজার।

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে হাফেজ রবিউল বাসারকে জেলা আমির ও নুরুল হুদাকে সেক্রেটারি করে জেলা জামায়াতে কমিটি ঘোষণা করা হয়।

জামাতের সম্মেলনের মাধ্যমে জেলা জামাতের কমিটি গঠনের বিষয়টি সরকারের দুটি গোয়েন্দা সংস্থা ডিবি ও ডিএসবি নিশ্চিত করেছেন।

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম বলেন, জামায়াত এতদিন জেলায় চুপসে ছিল তারা নতুন করে সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করছে। তারা সবসময় শান্ত জেলাকে অশান্ত করার চেষ্টায় লিপ্ত হওয়ার পায়তাঁরা করছে। তারা আড়ালে যতই সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করুক না কেন আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

পুলিশ সুপার মো. আলতাফ হোসেন জানান, তিনি গত কয়েক দিন ধরে এ ধরনের একটি তথ্য জানতে পেরেছেন। ঘটনাটি জানার পর খোঁজ খবর নিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন। ঘটনাটি নিয়ে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে সকল ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। নাশকতাকারীরা যাতে আর মাথাচাড়া দিয়ে না উঠতে পারে তার জন্য পুলিশ প্রয়োজনে আরও কঠোর হবে। নাশকতাকারীদের কোনো রকম ছাড় দেওয়া হবে না।






মন্তব্য চালু নেই