মেইন ম্যেনু

সাজার জন্য প্রস্তুত সালমান ?

৬ মে ভাগ্যপরীক্ষা বলিউড দাবাং বয় সালমান খানের। কারণ এদিন তার মামলার রায় ঘোষণা করা হবে। আর এ দিনকে সামনে রেখে সাজার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত এ অাভিনেতা। শোনা যাচ্ছে সেই দিনের আগে আর কোনো নতুন কাজের জন্য চুক্তিবদ্ধ হচ্ছেন না তিনি।

আদালত সালমানের ২০০২ সালের ‘হিট অ্যান্ড রান’ মামলার রায় ঘোষণা করবে আগামী ৬ মে। দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে চলা শুনানিতে সালমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ ২০০২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর সালমানের গাড়ি বান্দ্রায় বেকারিতে ধাক্কা মারে। ওই সময় বেকারির বাইরে ঘুমিয়ে থাকা এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। আহত হন চারজন। সেদিন মদ্যপ অবস্থায় সালমান গাড়ি চালিয়েছিলেন। যদিও তার ড্রাইভার আদালতে জানান, গাড়ি তিনিই চালিয়েছিলেন।

অবশ্য তার বক্তব্য নিয়ে সংশয় প্রকাশ করা হয়। আরো নানা বিষয়ে ডিফেন্স-প্রসিকিউশনের তর্ক বিতর্ক হয় আদালতে। অবশেষে সমস্ত শুনানি, সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত রায় ঘোষণা করবেন ৬ মে।

দিনটি যে জীবনের টার্নিং পয়েন্ট হতে চলেছে তা ভালো করেই জানেন সালমান। আর তাই এই মুহূর্তে কোনো কাজ হাতে নিচ্ছেন না তিনি। আদালতে দোষী প্রমাণিত হলে, ১০ বছর পর্যন্ত কারাদন্ড হতে পারে সালমানের। সেই সম্ভাবনা নিশ্চয় মাথায় রেখেছেন এ অভিনেতা। আর তাই তো শুধু বাজরাঙ্গি ভাইজান ও প্রেম রতন ধন পায়ো সিনেমার কাজের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

সালমানের আগে বলিউডের আর এক তারকা অভিনেতা সঞ্জয় দত্তেরও একই পরিণতি হয়েছিল। বেআইনি অস্ত্র রাখার অভিযোগে দোষী প্রমাণিত হয়ে কারাদন্ড হয়েছে তার। সাজা ঘোষণা হওয়ার পর, বাড়তি তৎপরতায় হাতে ধরাকাজ শেষ করতে হয়েছিল তাকে। সম্ভবত সে কথা মাথায় রেখেই আর কোনো কাজ নিচ্ছেন না সালমান। ৬ মে রায় ঘোষণার পরই জানা যাবে আগামীতে বলিউডে তাকে নিয়মিত দেখা যাবে কি না।

আরো পড়ুন…

১০ বছর কারাদণ্ড ভোগ করবেন সালমান খান !






মন্তব্য চালু নেই