মেইন ম্যেনু

সাংবাদিকরা আবাসন সুবিধা পাবে : প্রধানমন্ত্রী

সাংবাদিকদের আবাসন সুবিধা নিশ্চিতসহ সমবায় সমিতির মাধ্যমে প্লট ও ফ্ল্যাট বরাদ্দের উদ্যোগ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকার বাইরের সাংবাদিকরাও যাতে এই সুযোগ পান সে পদক্ষেপও নেয়া হবে বলে জানান তিনি। এসময় বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রকাশের জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) ইফতার পার্টিতে সাংবাদিকদের উদ্দেশে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সমালোচনা করুন কিন্তু কাজের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবেন না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সবার বাক স্বাধীনতা এবং ব্যক্তিস্বাধীনতা নিশ্চিত করে গেছেন। সে জন্যই দেশের সংবাদপত্র ও সাংবাদিকরা তাদের বাকস্বাধীনতা উপভোগ করছেন। তবে অনেকেই টক শোর নামে কথায় টক ছড়ান। এই টক শোর টক বাঘা তেঁতুলের মতো। বাক স্বাধীনতা আছে বলেই তারা ইচ্ছেমতো কথা বলত পারছেন।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘ইফতারির আয়োজনে আমি বেশি যাই না। আর গীবতও গাই না। আবার অনেককেই দেখি ইফতারির আয়োজন করে গীবত গাইছেন। তবে তিনি রোজা রাখেন কি না জানি না।’

দেশ এখন অনেক ভালো চলছে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে আর এখন দম বন্ধ করা পরিবেশ নেই। সব মানুষ মুক্ত পরিবেশে কাজ করে জীবনযাপন করতে পারছেন। দেশে মাথাপিছু আয় বেড়েছে, মুদ্রাস্ফীতির হারও কমেছে। বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা ১১ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে। গত বুধবার দেশে ৭ হাজার ৪০৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে।’

বিএফইউজের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন- তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ঢাকা আলতাফ মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমুখ।

বিএফইউজের মহাসচিব আবদুল জলিল ভূঁইয়া এই ইফতারপার্টি আলোচনা সভা পরিচালনা করেন।






মন্তব্য চালু নেই