মেইন ম্যেনু

সরকার স্বীকার করেছে তারা অবৈধ : মির্জা ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সরকার স্বীকার করে নিয়েছে তারা অবৈধ। সংলাপ আলোচনা চাইলে আগে সরকারকে বৈধতা দিতে হবে, তারপর আলোচনা, আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন বক্তব্য তা প্রমান করে।’

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।
‘সারাদেশে গুম, বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সঙ্কটের আবর্তে বাংলাদেশ’ শীর্ষক গোল টেবিল আলোচনা সভার আয়োজন করে ন্যাশনাল পিপলস পার্টি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা সব সময় আলোচনা-সংলাপ চাই। জবরদখলকারী সরকার বলছে, এখন আলোচনা হবে না। তারা পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। তারা যদি নির্বাচন না দেয় তাহলে জনগণ মাঠে নামবে। আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার পতন করে সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে বাধ্য করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ অতীতেও বিরোধী দলকে ধ্বংস করার জন্য বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গুম খুন ও মিথ্যা মামলা দিয়ে র্নিমূল করার চেষ্টা করছে। শেখ মুজিবের তো হৃদয় ছিল এদের তাও নেই। এদের একটাই উদ্দেশ্য বিরোধী দলকে ধ্বংস করা।’

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘গুম, খুন এখন নিত্য দিনের ব্যাপার হয়ে গেছে। আইনশৃঙ্খলাবাহিনী দিয়ে সরকার গুম, খুন করাচ্ছে। আর এর সুযোগ নিচ্ছে র‌্যাব, পুলিশ। যত গুম, খুন হচ্ছে সবগুলোর তদন্তে বেরিয়ে আসছে র‌্যাব জড়িত।’

‘গত এক বছরে বিরোধী দলের ৩১০ জনকে হত্যা এবং ৩৭ জনকে গুম করা হয়েছে’ বলে জানান তিনি।

‘মানুষ কোথাও নিরাপদ নয়’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘মিরপুরে বিহারী পল্লীতে পুলিশের সামনেই আগুন দিয়ে মানুষ হত্যা করা হয়েছে। তাহলে সরকার কোথায়? মানুষ কোথায় যাবেন?’

ফখরুল বলেন, ‘আমরা দাওয়াত খাওয়ার জন্য আন্দোলন করি নাই। জনগণের ভোটের অধিকার আদায়ের জন্য আন্দোলন করছি। প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্য অসৎ ছিল। তিনি আলোচনার সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেননি। আমরা আগেও বলেছি এখনও বলছি আলোচনা হতে হবে সুনির্দিষ্ট বিষয় নিয়ে।’

আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান শেখ শওকত হোসেন নিলুর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন- সংগঠনের মহাসচিব ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ইসলাসিক পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মোবিন, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই