মেইন ম্যেনু

সমুদ্র জয় নিয়ে সরকার সত্যের অপরাধ করেছে : মেজর (অব.) হাফিজ

সম্প্রতি সমুদ্রসীমা জয় নিয়ে সরকার যে প্রচার প্রপাগাণ্ডা চালাচ্ছে তা সত্যের অপরাধ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক পানি সম্পদ মন্ত্রী মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদ।
শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে লিবার্টি বাংলাদেশ আয়োজিত ‘বাংলাদেশ সমুদ্রসীমা: মিয়ানমার ও ভারত’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, ‘এমন একটি সময় সমুদ্রসীমার রায় এসেছে যখন দেশে গণতন্ত্র নেই, জনগণের সরকার নেই।’
সাবেক পানি সম্পদ মন্ত্রী বলেন, ‘সমুদ্র নিয়ে ‘মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের রায়ে বিচারকরাই সন্তুষ্ট নয়। তারাই বলছে বাংলাদেশের ওপর অবিচার করা হয়েছে। কারণ গ্যাসের ৭ টি ব্লক আমরা হারিয়েছি। সেখানে কি বিজয় আমরা অর্জন করতে পারি। তা একটি শিশুও জানে।’
‘দক্ষিণ তালপট্টি দ্বীপ ছিল বাংলাদেশের অবিচ্ছেদ্য অংশ। এ দ্বীপ নিয়ে শহীদ জিয়া ভারতের সঙ্গে আলোচনা করেছে বলে জানান সাবেক এ মন্ত্রী।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এমাজ উদ্দিন আহাম্মেদ সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ‘সমুদ্র বিজয় নিয়ে সঠিকভাবে না যেনে বিজয় মিছিল করা খুবই লজ্জাজনক কথা।’
তিনি বলেন, ‘দক্ষিণ তালপট্টি এলাকায় বা তার সংলগ্ন অনেক গ্যাস সম্পদ রয়েছে। এ বিষয়ে এখন আর কিছু করার নেই। তবে আলোচনার সুযোগ রয়েছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘দক্ষিণ তালপট্টি হারিয়েছি। তবুও এ দ্বীপ নিয়ে তাদের কোনো আলোচনা বা আফসোস নেই।’
প্রবীণ এ রাষ্ট্রবিজ্ঞানী সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘সমুদ্রের সম্পদ হারিয়েছেন তা নিয়ে আর কিছু করার নেই। কিন্তু নদীর বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে তা না হলে সোনার বাংলা, মরুভূমির বাংলায় পরিণত হবে।’
বাংলাদেশ-ভারত প্রসঙ্গে সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘বন্ধুত্বের অর্থ যদি অনুগত হয়। তাহলে ওই বন্ধুত্ব অনার্থক। এ চিন্তাকে পরিবর্তন করতে হবে।’
অনুষ্ঠানে বিষিয়ভিত্তিক আরও আলোচনা করেন- শিক্ষাবিদ ড. ছাব্বির মোস্তফা খান, সমুদ্র বিশেষজ্ঞ ক্যাপ্টেন রেজাউল করিম, শফিকুর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কবি আবদুল হাই সিকদার ও সেক্রেটারি জাহাঙ্গীর আলম প্রধান।






মন্তব্য চালু নেই