মেইন ম্যেনু

শেষে আল্লাহ সদয় হয়েছিল

রাজধানীর শাহজাহানপুরের পাইপ থেকে শিশু জিহাদকে উদ্ধারে নিজের এবং দায়িত্বশীলদের ব্যর্থতার কথা স্বীকার না করে উল্টো সাফাই গাইলেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কাজ নিয়ে তিনি বলেন, ‘তারা ব্যর্থ নয়, তারা তো শেষ পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে গেছে। শেষে আল্লাহ সদয় হয়েছিল ছেলেটির উপর।’

রোববার দুপুরে সচিবালয়ের নিজ কার্যালয়ে জঙ্গিবাদ প্রতিরোধী ও প্রতিকার জাতীয় কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।
জিহাদের বাবাকে আটকে রাখার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘এ ঘটনার পেছনে খারাপ কোনো উদ্দেশ্য ছিলা না।’ এসময় তার পাশে থাকা পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) হাসান মাহমুদ খন্দকার যোগ করেন, ‘রহস্য উন্মোচনে সৎ উদ্দেশ্য নিয়েই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল।’

উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে শাজাহানপুর এলাকায় পানির পাম্পের পাইপের কাছে খেলতে গিয়ে খোলা মুখ দিয়ে নিচে পড়ে যায় জিহাদ নামের তিন বছরের একটি শিশু। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেখানে গিয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

রাত ৩টায় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী উদ্ধার কাজ পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এই পাইপে যে, কোনো জীবিত বা মৃত শিশুর অস্তিত্ব নেই এতে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই। তারপরও ফায়ার সার্ভিস ওই পাইপের শেষ স্তর পর্যন্ত অভিযান চালাবে।’

মন্ত্রীর এ মন্তব্যের ৯ ঘণ্টার মাথায় একদল স্বেচ্ছাসেবীর প্রচেষ্টায় উদ্ধার হয় শিশু জিহাদ। তবে জীবিত নয়, মৃত অবস্থায়






মন্তব্য চালু নেই