মেইন ম্যেনু

শেখ হাসিনাকে হুঁশিয়ারি

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ বন্ধ করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাজ্য বিএনপি ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে ইস্ট লন্ডনের সোনারগাঁও রেস্টুরেন্টে এ ‘তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক মামলা প্রত্যাহার দাবিতে এক আলোচনা সভায় এ হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখি করার হুঁশিয়ারিও দেয়া হয়।

যুক্তরাজ্য জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম এ সভার আয়োজন করে।

সভায় বক্তারা সরকারকে হুঁশিয়ার করে তারা বলেন, ইতিহাসের সত্য উদঘাটনের জন্য তারেক রহমানের বিরুদ্ধে প্রায় অর্ধশত রাজনৈতিক মামলা দেয়া হয়েছে। এসব করে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। ষড়যন্ত্রের পথ না ছাড়লে আওয়ামী লীগ রাস্তাঘাটে জনগণের হাতে মার খাবে। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখি করারও হুমকি দেন তারা।

উল্লেখ্র, গত ১৫ ডিসেম্বর লন্ডনে বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান শেখ মুজিবুর রহমানকে রাজাকার বলে অভিহিত করেন। এরপর দেশের বিভিন্ন স্থানে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের নেতারা এ পর্যন্ত ৪৫টি মামলা দায়ের করেন। এসব মামলার প্রতিবাদ এবং প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম, যুক্তরাজ্য শাখা লন্ডনে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে।

যুক্তরাজ্য জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আহ্বায়ক ব্যারিস্টার তারেক বিন আজিজের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক কয়সর এম আহমেদ, সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল হামিদ চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এমএ সালাম, ব্যারিস্টার আরমান রফিক, ড. মুজিবুর রহমান, ব্যারিস্টার তমিজ উদ্দীন, আবুল হোসাইন, সলিসিটর একরামুল হক মজুমদার, ব্যারিস্টার শাহজাহান, ব্যারিস্টার একেএম কামরুজ্জামান, ব্যারিস্টার হামিদুল হক আফিন্দি লিটন, ব্যারিস্টার আনোয়ার হোসেন, অ্যাডভোকেট আবুল হাসনাত, ব্যারিস্টার শাহজাহান, ব্যারিস্টার এম আশরাফুল আলম চৌধুরী, ব্যারিস্টার হাফিজুর রহমান, ব্যারিস্টার আলিমুল হক লিটন, ব্যারিস্টার মুজিবুর রহমান, ব্যারিস্টার একেএম হাসনাত, অ্যাডভোকেট গোলাম জাকারিয়া, অ্যাডভোকেট টিপু, ব্যারিস্টার ওবায়দুর রহমান টিপু জাহিদ, লিগ্যাল অ্যাডভাইজার কুমকুম আক্তার, তরুণ দল নেতা অলিউর রহমান ফাহিম প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন যুক্তরাজ্য জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সদস্য সচিব সলিসিটর বিপ্লব পোদ্দার।

শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুস অবিলম্বে তারেক রহমানের নামে দায়ের করা সব মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘ষড়যন্ত্রের পথ না ছাড়লে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে তাতে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক মৃত্যু ঘটবে। দলটি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে।’

তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি। তাই এখন স্বাধীনতা বিরোধী আওয়ামী চক্র জিয়া পরিবারকে ধ্বংস করতে অপতৎপরতা চালাচ্ছে।’

এ ষড়যন্ত্র রুখে দিতে বিশ্বব্যাপী গণসংযোগ চালাতে প্রবাসী জাতীয়তাবাদী শক্তির প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

কয়সর এম আহমেদ বলেন, ‘আমরা একটি কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি। আওয়ামী ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া রাজপথে লড়াই করছেন। তাকে সহযোগিতা করছেন দেশনায়ক তারেক রহমান। তিনি ইতিহাসের সত্য তথ্য উদঘাটন করেছেন। এতে আওয়ামী লীগের মাথা খারাপ হয়ে গেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘একাত্তরে মেজর জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে যুদ্ধ করে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি। এবার দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধে আমাদের ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।’

সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে কয়সর এম আহমেদ বলেন, ‘অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নামে সব মামলা প্রত্যাহার করুন। অন্যথায় রাজপথ ও আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমেই জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে।’

ব্যারিস্টার তারেক বিন আজিজ বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনীতি ও কর্ম সম্পর্কে বাস্তব তথ্য তুলে ধরায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ না করলে শেখ মুজিব পরিবারকে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।’






মন্তব্য চালু নেই