মেইন ম্যেনু

লতিফ সিদ্দিকীর শিরচ্ছেদ চান কন্ঠশিল্পী ন্যান্সি!

নবী করিম (সা.), হজ্ব ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে গত রোববার নিউইয়র্কে বিরূপ মন্তব্য করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী। এর পরই দেশে-বিদেশে শুরু হয়ে যায় সমালোচনার ঝড়। প্রচণ্ড বিতর্কের মাঝে পড়েন তিনি, পুরো সমাজের তোপের মুখে। কাহিনী এখানেই শেষ নয়, তাকে মন্ত্রিসভা থেকেও অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তবে তাতে বিতর্ক থামেনি। এখনো দেশ জুড়ে চলছে আলোচনা আর সমালোচনার ঝড়।

এ বিষয়ে এবার মুখ খুললেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী ও জাসাস নেত্রী ন্যান্সি। তিনি ১ অক্টোবর তার ফেসবুকে এ বিষয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। এই স্ট্যাটাসে তিনি লতিফ সিদ্দিকীর শিরচ্ছেদের দাবি করলেন। তবে শুধু মন্ত্রী নয়, এই স্ট্যাটাসেও ন্যান্সি তার আওয়ামী বিরোধী মনোভাব প্রকাশ করতে দ্বিধা করেননি। এবং ন্যান্সির উগ্র ভাষায় আহত হয়েছেন অনেক ভক্তই? কী লিখেছেন এমন তিনি? হুবহু তুলে দেয়া হলো স্ট্যাটাসটি।

ন্যান্সি তার স্ট্যাটাসে লেখেন,

ভালোই তো…!! ডিজিটাল দেশের ডিজিটাল নাস্তিক মন্ত্রীরা একের পর এক উন্মাদের মত বক্তব্য দিয়েই প্রমাণ করে দিচ্ছে তারা আসলেই বিকৃত মস্তিষ্ক সম্পন্ন মানুষ।

তা না হলে ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে মহান আল্লাহ ও তার নবী এবং পবিত্র হজ্বকে নিয়ে কটাক্ষ করা কোনো সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের পক্ষে সম্ভব নয়।

হয় লতিফ সিদ্দিকী জন্ম থেকেই উন্মাদ। আর না হয় সেদিনের বক্তব্য দেওয়ার সময় আল্লাহই তার বিবেক বুদ্ধিকে ভোঁতা করে দিয়েছিল। শুধুমাত্র আমাদের বুঝানোর জন্য যে, এরা আসলে কোনো দিক থেকেই সুস্থ নয়।

আমি মনেকরি ধর্ম নিয়ে এমন ধরনের মন্তব্য করার পর ওই নাস্তিক, কুলাঙ্গার লতিফ সিদ্দিকী বাংলাদেশ কেন, আল্লাহর তৈরি এই দুনিয়াতেই বসবাস করার অধিকার হারিয়েছে। মুসলমানদের যদি দ্বীনের জন্য লড়াই করা ফরজ হয়ে থাকে, তাহলে মনেহয় এই নাস্তিকের শিরেচ্ছেদ করাও ফরজ।

সুতরাং, জনসম্মুখে এই নাস্তিকের শিরেচ্ছেদ করা উচিত।”






মন্তব্য চালু নেই