মেইন ম্যেনু

রুহুল হককে আবার দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হক এবং তার ছেলে জিয়াউল হককে দ্বিতীয়বারের মতো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় ছেলেকে নিয়ে সেগুন বাগিচায় দুদক কার্যালয়ে উপস্থিত হন রুহুল হক। বেলা দেড়টার দিকে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হয়।
দুদকের উপ পরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম পিতা-পুত্রকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন বলে জানিয়েছেন দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য।
দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হলফনামায় দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিগত মহাজোট সরকার আমলের মন্ত্রী-সাংসদদের অস্বাভাবিক আয় বৃদ্ধির খবর বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ায় তা আমলে নেয় দুদক।
চলতি বছর জানুয়ারিতে সাত জন মন্ত্রী-সাংসদদের সম্পদ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক, যাদের মধ্যে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নামও রয়েছে।
এরপর গত ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রথমবারের মতো জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হন রুহুল হক। তখন তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, নির্বাচন কমিশনে হলফনামার মাধ্যমে দেয়া সম্পদ বিবরণীতে ‘ভুল’ করে স্ত্রীর সম্পত্তি বেশি লিখেছিলেন।
সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেছিলেন, তার স্ত্রী ইলা হকের প্রকৃত ব্যাংক স্থিতি ৪৫ লাখ ১৭ হাজার টাকা, কিন্তু নির্বাচনী হলফনামায় ‘অসাবধানবশত’ তিনি লিখেছিলেন ৭ কোটি ৫৩ লাখ ১১ হাজার টাকা।

মঙ্গলবার জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রুহুল হক সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।
তবে দুদকের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, “তিনি যে তথ্য দিয়েছেন এবং দুদকের অনুসন্ধানের পর যেসব তথ্য আমাদের হাতে এসেছে, তা যাচাই-বাছাই করার জন্যই তাকে এবং তার ছেলেকে ডাকা হয়েছিল।”
দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের টিকিটে জয়ী হলেও রুহুল হক বর্তমান মন্ত্রিসভায় স্থান পাননি।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই