মেইন ম্যেনু

ম্যারাডোনার আবার বিয়ে !

প্রেমের কানামাছি খেলছেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা! কখনো ছিয়াশির মহানায়কের প্রেমের কাব্য রচিত হয় রোসিও অলিভা, কখনো বা ভেরোনিকা ওজেদার সঙ্গে! তবে বাতাসে জোর গুঞ্জন, ওজেদা বাদ দিয়ে শেষ পর্যন্ত অলিভার সঙ্গেই গাঁটছড়া বাঁধার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর্জেন্টিনা-কিংবদন্তি। আরও একবার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন ম্যারাডোনা।
বিয়েটা আর্জেন্টিনায় নয়, হবে জার্মানিতে। আগামী বছরের মে মাসে। শোনা যাচ্ছে, অলিভা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়াতেই নাকি এমন সিদ্ধান্ত। অথচ এ অলিভাকে নিয়ে কত ঘটনার জন্ম দিলেন সাবেক আর্জেন্টিনা অধিনায়ক! মাঝে সম্পর্কটা এতটা তিক্ত হলো, আর্জেন্টিনা-কিংবদন্তি অভিযোগ করলেন, অলিভা দুবাইয়ের বাড়ি থেকে তাঁর কিছু মূল্যবান জিনিস চুরি করে পালিয়েছেন। পরে পুলিশ আটকও করে ম্যারাডোনার ২৪ বছর বয়সী সাবেক বান্ধবীকে। গত অক্টোবরে তো অলিভাকে পেটানোর ভিডিও প্রকাশ হলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
ওদিকে ভেরোনিকার সঙ্গে প্রেমের দিনগুলোয় পৃথিবীতে এসেছিল ছেলে ডিয়োগো ফার্নান্দো। শোনা গিয়েছিল, ভেরোনিকার সঙ্গে নাকি ম্যারাডোনার সম্পর্ক চুকে-বুকে গেছে। কিন্তু মাঝেমধ্যে দুজনকে দেখা গেছে একসঙ্গে। গত আগস্টে এক থিয়েটার থেকে ভেরোনিকা ও ফার্নান্দোকে নিয়ে ফেরার পথে এক সাংবাদিককে চড় মেরে এলেন আলোচনায়!
এমনিতে বিয়ে নামের সামাজিক প্রতিষ্ঠানটির খুব একটা আস্থা নেই ম্যারাডোনার। বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন একবারই—৭ নভেম্বর ১৯৮৪ সালে। বিয়ে করেন দীর্ঘদিনের বাগদত্তা ক্লদিয়াকে। সে ঘর আসে দুই মেয়ে—দালমা ও জিয়ান্নিনা। ক্লদিয়ার সঙ্গে ম্যারাডোনার সম্পর্কটা চূড়ান্তভাবে টুটে যায় ২০০৪ সালে। স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হলেও দুই মেয়ের সঙ্গে এখনো দারুণ সম্পর্ক ম্যারাডোনার।






মন্তব্য চালু নেই