মেইন ম্যেনু

মুমিনুলের আফসোসটা ভিন্ন কারণেই

খুলনার শেখ আবু নাসের ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন মুমিনুল হক। টানা ১০ ম্যাচে হাফ সেঞ্চুরির সুবাদে তিনি নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য এক উচ্চতায়।

এর মধ্য দিয়ে নাম লিখিয়েছেন ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের পাশে। রেকর্ড তালিকায় শীর্ষে থাকা এবি ডি ভিলিয়ার্সকে (১২) টপকে যেতে আর মাত্র ৩টি হাফ সেঞ্চুরি প্রয়োজন মুমিনুলের।

তবে এই হাফ সেঞ্চুরিকে টেনে সেঞ্চুরিতে পরিণত করতে পারতেন মুমিনুল। কিন্তু খুলনা টেস্টের প্রথম দিনের অন্তিমলগ্নে কপাল পুড়ল তার। দিনের এক বল বাকি থাকতে ব্যক্তিগত ৮০ রানের মাথায় জুলফিকার বাবরের শিকার হয়ে হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়েন বাংলাদেশের তরুণ এই তারকা। তার ১৬২ বলের ইনিংসে ছিল দৃষ্টিনন্দন ৮টি চারের মার।

সেঞ্চুরি না পাওয়ায় অনেকেই হয়তো ভাবছেন যে, ব্যক্তিগত কারণে মুমিনুল বেশ মন খারাপ করেছেন। ব্যাপারটি আসলে তেমন নয়। মুমিনুলের আফসোসটা দলের জন্যই। বুধবার তিনি ক্রিজে থাকলে দলের জন্য অনেক ভালো হতো বলেও জানান মুমিনুল।

মঙ্গলবার প্রথম দিনের খেলা শেষে খুলনায় সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন মুমিনুল। সেখানে তিনি বলেন, ‘আমি আউট না হলে ভালো হতো। এখনও যে খারাপ অবস্থানে আছি তা কিন্তু নয়। আমরা মাত্র ৪ উইকেট হারিয়েছি। আমার আরো দায়িত্ব নিয়ে খেলা উচিত ছিল। দিনের শেষ সেশনে একটা উইকেট পড়ার অর্থই হচ্ছে প্রতিপক্ষের জন্য সেটা বোনাস পয়েন্ট।’

খুলনা স্টেডিয়ামের উইকেটের বর্ণনা দিতে গিয়ে মুমিনুল বলেন, ‘জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে যে উইকেটে আমরা খেলেছিলাম, এবারও তা-ই। তবে এটাও ঠিক যে, উইকেটে টিকে থেকে স্কোরশিটে রান যোগ করাই শ্রেয়।’






মন্তব্য চালু নেই