মেইন ম্যেনু

মাহি প্রসঙ্গে জাজের নতুন সুর

হঠাৎ করেই মাহি প্রসঙ্গে সুর বদল করলেন জাজ মাল্টিমিডিয়া! সম্প্রতি এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি তাদের অফিসিয়াল পেইজে মাহিকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে। এতে জাজ তাদের সাম্প্রতিক সুর থেকে সরে এসে মাহির প্রসংশা করে দেয়া হয় ওই স্ট্যাটাস।

জাজ তাদের ওই স্ট্যাটাসে লিখেন, ‘ইদানীং খবরের কাগজে, ফেসবুক, অনলাইন নিউজ পেপারে জাজ ও মাহিকে নিয়ে অনেক কিছু লিখা হচ্ছে, অনেকে আবার ইনবক্স এবং কমেন্টে অনেক কিছু জানতে চাচ্ছে। তাদের সবার কাছে কিছু ব্যাপার পরিষ্কার করার জন্যই আমরা এ স্ট্যাটাস দিয়েছি।

মাহির সঙ্গে চুক্তির ব্যাপারে ওই স্ট্যাটাসে বলা হয়, ‘মাহি জাজের বাইরে কোন সিনেমা করতে পারবে না, জাজের সাথে মাহির এ রকম কোন চুক্তি কখনো হয়নি। গত আড়াই বছরে মাহি জাজ এর বাইরে ৪টি সিনেমা করেছে। ‘ভালোবাসার রঙ’ এর পরপরই মাহি আবুল খায়ের বুলবুল পরিচালিত একটি সিনেমার কাজ শুরু করে যার নায়ক ছিল আরজু। সিনেমাটি মাঝপথে বন্ধ হয়ে যায়। এর পর মাহি ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘কি দারুণ দেখতে’ সাফিউদ্দিন সাফি পরিচালিত ‘বিগ ব্রাদার’ ও ‘ওয়ার্নিং’ সিনেমাতে অভিনয় করে। এর বাহিরে মাহি অভিনীত সব সিনেমাই ছিল জাজ এর। মূল কথা হল মাহিকে জাজ কখন বন্দি করে রাখেনি। সে সবসময়ই স্বাধীন ছিল এবং আছে।’

তাদের স্ট্যাটাসে আরও লেখা হয় যে মাহির ক্যারিয়ারের কথা বিবেচনা করেই জাজ মাহি অভিনীত অন্য ছবিগুলো পর্যবেক্ষণ করতো। মাহিও তাই চাইতো।

মাহিকে প্রতিষ্ঠিত করতে জাজের ভূমিকা তুলে ধরে তারা লিখেন, ‘জাজ কখনো মাহি ছাড়া কোন সিনেমা করেনি। একজন নায়িকা কে প্রতিষ্ঠিত হতে তাকে নায়িকা কেন্দ্রিক সিনেমা করতে হবে। জাজ মাহিকে সব নায়ক ও নায়িকার উপরে নেওয়ার জন্য তাই করেছে। জাজ এর ১১টা সিনেমার ৯টি ছিল নায়িকা কেন্দ্রিক। এখন মাহির উপরে বাংলাদেশে একজন শিল্পী আছে, উনি শাকিব খান। যদি আজ জাজ ও মাহির মাঝে এই দুরত্ব না হতো, তাহলে মাহি শাকিব খানকে ও ছাড়িয়ে যেতে পারত। শাকিব খানের এক মাত্র হুমকি ছিল মাহি।

মাহিকে বাদ দেওয়া প্রসঙ্গে তারা লিখেন, ‘জাজ ও মাহির মাঝে কিছু ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়। তাই জাজ মাহিকে বাদ দেয়। এর মাঝে নতুন নায়িকার আগমন বা অন্য কিছু নেই। বাংলাদেশের সিনেমাকে এগিয়ে নিতে জাজকে বছরে কম পক্ষে ১২টি সিনেমা তৈরি করতে হবে। কিন্তু একজন নায়ক বা নায়িকা বছরে ৫টির বেশি সিনেমা করতে পারে না। তাই বছরে ১২টি সিনেমা বানানোর জন্য জাজ এর কমপক্ষে ৩ জন নায়ক ও ৩ জন নায়িকা প্রয়োজন। তাই জাজ আরও ২টি নতুন মুখ উপহার দিয়েছে।’

সবশেষে তারা লিখেন, ‘আমাদেরকে আমাদের মত কাজ করতে দেন। মাহিকে মাহির মত থাকতে দিন। মাহি অনেক ভাল, গুণী ও পরিশ্রমী অভিনেত্রী। এবং উনি নিজের কাজের প্রতি অনেক নিষ্ঠাবান। আশা করি মাহি বাংলা চলচ্চিত্রে আরও অনেক দিন শক্ত অবস্থান নিয়ে থাকবে। আর মাহি সফল হলে আমরা ও খুশি কারণ মাহি জাজেরই মেয়ে এবং সারা জীবন জাজের মেয়েই থাকবে। জাজ সারা জীবন মাহির পাশে থাকবে তার সুখে দুখে ।’






মন্তব্য চালু নেই