মেইন ম্যেনু

মাশরাফির আঘাতে দুর্দান্ত শুরু

শ্রীলঙ্কায় স্বপ্নের সিরিজ জয়ের ম্যাচে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বল হাতে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন। আগের ম্যাচ জেতানোয় বড় ভূমিকা ছিল তার। নিয়েছিলেন প্রথম উইকেটটাও। মঙ্গলবার ডাম্বুলায় দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ম্যাচের তৃতীয় ওভারেই আঘাত হেনেছেন মাশরাফি। ভেঙেছেন উদ্বোধনী জুটি। দলীয় ১৮ রানে শ্রীলঙ্কা হারিয়ে ফেলেছে দানুসকা গুনাথিকালার (৯) উইকেট। ম্যাচের তৃতীয় ওভারেই উইকেট বাংলাদেশের। এই রিপোর্ট লেখার সময় ২.৩ ওভারে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ১ উইকেটে ১৮ রান। অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গা (০) যোগ দিয়েছেন কুশল মেন্ডিসের সাথে।

যে ক্যাচটি দানুসকা তুলেছিলেন তা লেগ সাইডে ধরতে তিন ফিল্ডার ছুটেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা উইকেটকিপার মুশফিকুর রহীমের গ্লাভসে নিরাপদে জমা হয়। দারুণ ব্রেক থ্রু এনে দিয়ে শ্রীলঙ্কানদের গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে শুরুতেই ধাক্কা দিলেন মাশরাফি। এই ম্যাচে তিনটি পরিবর্তন নিয়ে খেলছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশ উইনিং কম্বিনেশন ভাঙেনি। আগের ম্যাচ ৯০ রানে জেতা দলের একাদশটি খেলছে।

সিরিজের বাকি দুই ম্যাচের একটিতে জিতলেই বাংলাদেশ গড়ে ফেলবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে সিরিজ জয়ের কীর্তি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এ পর্যন্ত ৬টি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে ৫টিতেই জিতেছে শ্রীলঙ্কা। একটি ড্র হয়েছে (১-১)। আর এই দলের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার মাটিতে এখন পর্যন্ত মাত্র দুবার জিতেছে টাইগাররা। এই সিরিজ ৩-০ তে জিতলে বাংলাদেশের বিশ্ব র‍্যাঙ্কিংয়ে ৭ থেকে ৬ এ চলে যাওয়ার হাতছানি। তাতে ২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার আশাটা বেড়ে যাবে খুব। কিন্তু তার আগে দ্বিতীয় ম্যাচটা তো জিততে হবে! আগের ম্যাচে এই রনগিরি মাঠেই কিন্তু বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান-বোলাররা দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে উড়িয়েই দিয়েছিল লঙ্কানদের।

প্রথম ম্যাচে হেরে বসা উপুল থারাঙ্গার দল সিরিজ বাঁচানোর এবং সমতা আনার এই ম্যাচটিকে ‘ফাইনাল’ হিসেবেই নিয়েছে। তারা জানে, টেস্ট হারের পর তাদের ক্রিকেটের মৃত্যু সংবাদ ছাপা হয়েছে। এবার বাংলাদেশের কাছে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা ওয়ানডে সিরিজ হারলে দলটি পড়ে যাবে নিদারুণ ঝামেলায়। যদিও ওয়ানডেতে বাংলাদেশ সমীহ জাগানো দল। ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার পর দেশের মাটিতে ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলকে সিরিজ হারিয়েছে। গেল বছরের শেষটায় ১টি ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজ জয়ের সম্ভাবনাও জাগিয়েছিল। এবার?

বাংলাদেশ একাদশ : বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান।

শ্রীলঙ্কা একাদশ : দানসুকা গুনাথিলাকা, উপুল থারাঙ্গা (অধিনায়ক), কুশল মেন্ডিস, দিনেশ চান্ডিমাল, আসেলা গুনারত্নে, মিলিন্দা সিরিওয়ার্দানে, থিসারা পেরেরা, দিলরুয়ান পেরেরা, সুরঙ্গা লাকমাল, নুয়ান কুলাসেকারা, নুয়ান প্রদিপ।






মন্তব্য চালু নেই