মেইন ম্যেনু

মালয়েশিয়া প্রবাসীর স্ত্রীকে মুখে গামছা বেধে ধর্ষণ করল পল্লী চিকিৎসক

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ঘরে ঢুকে মুখে গামছা বেঁধে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে (২০) ধর্ষণ করেছে পল্লী চিকিৎসক আবুল হোসেন।

শুক্রবার রাতে উপজেলার হাতীবান্ধা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাড়ির লোকজন ধর্ষককে আটক করে পুলিশে দেয়।

শনিবার সকালে ধর্ষিতা বাদী হয়ে আবুল হোসেনকে আসামি করে সখীপুর থানায় মামলা করেছেন।

ধর্ষিতা জানান, বিয়ের কিছুদিন পর তার স্বামী মালয়েশিয়ায় চলে যায়। গত ২-৩ মাস ধরে ফোনে তাকে নানাভাবে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত মজিবর মুন্সীর ছেলে পল্লী চিকিৎসক ২ সন্তানের জনক আবুল হোসেন (৪০)।

শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই গৃহবধূ প্রকৃতির ডাকে বাইরে যায়। এ ফাঁকে তার ঘরে ঢুকে পড়ে আবুল হোসেন। দরজা বন্ধ করতেই আবুল হোসেন জোরপূর্বক তার মুখে গামছা বেঁধে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

এক পর্যায়ে ওই গৃহবধূ চিৎকার দিলে আবুল হোসেনকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পুলিশে দেয় বাড়ির লোকজন।

সখীপুর থানার ওসি মাকছুদুল আলম বলেন, গৃহবধূ ধর্ষণের মামলায় আবুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই