মেইন ম্যেনু

মন্ত্রী-এমপিকেও ছাড় দেয়া হবে না : খাদ্যমন্ত্রী

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, বুড়িগঙ্গা নদী দখল মুক্ত করতে এমপি-মন্ত্রী কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না, দখলদার যেই হোক তাদের উচ্ছেদ করা হবে।

বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমরা নগরবাসী (এনবি) আয়োজিত ঈদ আনন্দ র‌্যালির পূর্বে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বুড়িগঙ্গা আজকে হুমকির মুখে। এক এক করে কিছু প্রভাবশালী লোক দখল করে আছে। এরা দেশ ও পরিবেশের শত্রু। এই লোকগুলো যখন যে দল ক্ষমতায় যায় তাদের নাম ব্যবহার করে বুড়িগঙ্গাকে দখল করে। এদের কোনো চরিত্র নেই। এই প্রভাবশালী লোকগুলো এমপি-মন্ত্রী হলেও কোনো প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।’

তিনি একই সঙ্গে ঢাকাবাসীকে এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ারও আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আপনারা এগিয়ে এলেই বুড়িগঙ্গা দখলমুক্ত করা যাবে। আর তা হলেই ঢাকাকে একটি আধুনিক নগর হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব।’

কামরুল বলেন, ‘দেশের মানুষ শান্তি ও স্বস্তি চায়। রাজনৈতিক দলগুলোর সন্ত্রাস, নৈরাজ্য আর ঢাকাবাসী দেখতে চায় না। তাই বিএনপি আন্দোলনের নামে কোনো ধরনের খারাপ পরিবেশ সৃষ্টি করলে তার বিরুদ্ধে সরকার কঠোর ব্যবস্থা নেবে।’

এ সংক্ষিপ্ত সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, স্বাধীনতা পরিষদ সভাপতি জিন্নাত আলী খান জিন্না, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ঢাকা মহানগর সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

পরে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। এই র‌্যালিটি জাতীয় প্রেসক্লাব হয়ে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো ঘুরে প্রেসক্লাবের সামনেই শেষ হয়।






মন্তব্য চালু নেই