মেইন ম্যেনু

ভোট কারচুপির অভিযোগ তদন্তের তাগিদ জাতিসংঘের

তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তদন্তের তাগিদ দিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব বান-কি মুন। একইসঙ্গে সব রাজনৈতিক দলকে বর্তমান সমস্যা সমাধানে শান্তিপূর্ণ উপায় খুঁজে বের করার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেছেন তিনি।

মঙ্গলবার ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটে জালিয়াতি, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও অনিয়মের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানিয়েছেন মহাসচিবের মুখপাত্র ফারহান হক।

স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় লিখিত বক্তব্যে জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র বলেন, ‘ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) ভোট বর্জনের বিষয়ে মহাসচিব অবগত রয়েছেন। ভোট কারচুপির উত্থাপিত সব অভিযোগ তদন্ত করতে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে বিরোধী পক্ষ গণতান্ত্রিক উপায়ে নিজেদের উদ্বেগ প্রকাশ করবে বলে আশা করেছেন তিনি।’

এ ছাড়া শান্তিপূর্ণ উপায়ে নিজেদের ভিন্ন মতগুলো প্রকাশে সব দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বান-কি মুন।

মুখপাত্র আরো বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতির শান্তিপূর্ণ সমাধানের পথ খুঁজতে সব রাজনৈতিক নেতার প্রতি আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেছেন মহাসচিব।’

এদিকে বাংলাদেশে অবস্থিত যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের পক্ষ থেকেও ভোট কারচুপির অভিযোগের নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানানো হয়েছে।

এই দুটি দেশও ভোটপরবর্তী প্রতিক্রিয়া প্রকাশে আইন মেনে চলতে সব দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

দুই দেশের দূতাবাসের পৃথক বিবৃতিতে বিএনপি মঙ্গলবারের ঢাকার দুটি ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন বর্জন করায় হতাশা প্রকাশ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে তিন সিটি করপোরেশনের নির্বাচন শুরুর পর প্রথম ঘণ্টা মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবেই সব চলে। নির্বাচন কর্মকর্তারাও উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটের আশা প্রকাশ করেন। কিন্তু সকাল ৯টার পর থেকে পরিস্থিতি বদলাতে থাকে। বিভিন্ন কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ জানাতে থাকেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা।

ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে ‘ব্যাপক কারচুপির’ অভিযোগ এনে ভোটের চার ঘণ্টার মধ্যে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ।

এর আগে চট্টগ্রামে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মনজুর আলম নির্বাচন বয়কট করেন।






মন্তব্য চালু নেই