মেইন ম্যেনু

ভারতে এখনও যৌনদাসী রাখা যায়

হ্যাঁ। ভারতে এখনও ইচ্ছা করলে যৌনদাসী রাখা যায়। সম্প্রতি এক জরিপে বেরিয়ে এসেছে, টাকা দিয়ে এখনও ভারতে যৌনদাসী কেনা বেচা হয়। ক্রেতারা সাধারণত টাকাওয়ালা মধ্য বয়সী বা বৃদ্ধ।
কিনে নেয়া তরুণী বা কিশোরীকে দিয়ে তারা গৃহ পরিচর্যার কাজের পাশাপাশি যৌনতৃষ্ণাও মিটিয়ে থাকেন। এটা এক ধরণের ধর্ষণ হলেও বিষয়টি নিয়ে সমাজের লোকজন মুখ খোলেন না। কারণ যৌনদাসী কেনার পর একটি সংক্ষিপ্ত বিয়ের অয়োজন করা। আর এ বিয়েই এ প্রথাকে বৈধতা দেয়।
মজার বিষয় হলো- স্কুলে কলেজে পড়াশোনা করে, এমন অনেক মেয়েকেও তাদের অভাবী মা বাবা যৌনদাসী হিসেবে বিক্রি করে দেয় এবং যৌন দাসত্ব করার পরও অনেক মেয়েই পড়াশোনা চালিয়ে যায়।
ভারতের হায়দরাবাদ এলাকায় এমন যৌনদাসীর সংখ্যা কম নয়।
জানা গেছে, এ ধরনের বিয়ের সংখ্যা বাড়ছে। তবে এ নিয়ে সম্প্রতি নারীবাদী সংগঠনগুলো আন্দোলনে নেমেছে। তাদের পেছনে কাজ করছে কিছু বিদেশি এনজিও। বিয়ের নামে এমন যৌনদাস প্রথার বিরুদ্ধে তারা সোচ্চার।






মন্তব্য চালু নেই