মেইন ম্যেনু

ব্ল্যাটার জিতেছেন, ফুটবল হেরেছে !

দুর্নীতির অভিযোগে ফিফার যখন টালমাটাল অবস্থা, তার মধ্যেই সংস্থাটির সভাপতি পদে পুনর্নির্বাচিত হলেন সেপ ব্ল্যাটার। শুক্রবার জর্ডানের প্রিন্স আলী বিন আল হুসেইনকে পরাজিত করে পঞ্চমবারের মতো বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থার সভাপতি নির্বাচিত হন ৭৯ বছর বয়সি এই সুইস ফুটবল প্রশাসক।

অথচ গত বুধবারই ফিফার বড় ধরনের দুর্নীতি ধরা পড়ে। যেখানে ফিফার সাতজন কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর পর থেকে সমালোচনার তির ছিল ব্ল্যাটারের দিকে। অনেকে ভেবেছিলেন, ফিফার সভাপতি নির্বাচনে ব্ল্যাটার হেরে যাবেন। ফিফায় তার অধ্যায় শেষ হয়ে যাবে।

কিন্তু গতকাল জুরিখে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বেশ বড় ব্যবধানেই জয়লাভ করে ফিফার সভাপতি হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হন ব্ল্যাটার। আর তিনি পুনর্নির্বাচিত হওয়ায় ‘ফুটবল হেরেছে’ বলে মন্তব্য করেছেন লুই ফিগো। সেই সঙ্গে নির্বাচনের দিনটিকে ‘অন্ধকারময় দিন’ হিসেবেও অাখ্যা দিয়েছেন পর্তুগালের এই কিংবদন্তি ফুটবলার।

এবার ফিফার সভাপতি পদে ফিগোর দাঁড়ানোর কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে এসে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন তিনি। শুক্রবারের ফলাফলের পর হতাশা ব্যক্ত করে ফিগো বলেন, ‘আজ জুরিখে (শুক্রবার) আরেকটি অন্ধকারময় দিন শেষ হলো। ফিফা হেরেছে। সবচেয়ে বড় কথা, ফুটবল হেরেছে। সেই সঙ্গে এই দুটির প্রতি যারা বিশ্বাস রেখেছিলেন, তারাও হেরেছে।’

ফিফার কর্মকর্তাদের দুর্নীতির বিষয়ে নিজে কিছু জানতেন না বলে মন্তব্য করেছিলেন ব্ল্যাটার। এ ব্যাপারে ফিগোর ভাষ্য, ‘ব্ল্যাটার সব জানতেন। যখন তিনি বলেছিলেন, তিনি কাউকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না। তার মানে তিনি ফুটবল সম্পর্কে কিছুই জানেন না। তবু তিনি জিতেছেন। যদি ওনার মধ্যে সামান্যতম ভদ্রতা থাকে তাহলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই তিনি পদত্যাগ করবেন।’



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই