মেইন ম্যেনু

‘ব্লাডি পার্টি’ আ.লীগ, জামায়াত নয়

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জামায়াতে ইসলামীকে ‘ব্লাডি পার্টি’ বলায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে দলটি। তারা দাবি করেছে, জামায়াত যথেষ্ট গণতন্ত্রের চর্চা করে। এ বিশেষণ জামায়াতের জন্য নয় বরং আওয়ামী লীগের জন্যই বেশি প্রযোজ্য।

রোববার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য হামিদুর রহমান আযাদ।

তিনি বলেছেন, ‘মাননীয় অর্থমন্ত্রী আজ সচিবালয়ে এডিবির বৈঠকের পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জামায়াতকে ‘একটি ব্লাডি পার্টি’ হিসেবে অভিহিত করে যে অশালীন মন্তব্য করেছেন আমি তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তার মতো একজন প্রবীণ ব্যক্তির নিকট থেকে জাতি এ ধরনের অন্যায়, অযৌক্তিক ও অশালীন মন্তব্য আশা করে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। খুন-খারাবির রাজনীতিতে জামায়াতে ইসলামী কখনো বিশ্বাস করে না। দেশবাসী সকলেই অবগত আছেন যে, আওয়ামী লীগই সন্ত্রাস, হত্যা, গুমসহ খুন-খারাবির ব্লাডি ও রাবিশ রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। কাজেই মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আব্দুল মুহিতের বক্তব্য তার নিজ দলের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য, জামায়াতে ইসলামীর ক্ষেত্রে আদৌ প্রযোজ্য নয়।’

রোববার দুপুরে সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘জামায়াত হলো ব্লাডিপার্টি। এদের নিষিদ্ধ করা যাবে না। জামায়াতকে আইনীভাবে নিষিদ্ধ করা হলে তারা আত্মগোপনে গিয়ে খুনখারাবি করবে।’

জামায়াতের সঙ্গে সরকারের আঁতাত হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘জামায়াতের সঙ্গে সরকারের আঁতাতের বিষয়টি টোটালি রাবিশ। আওয়ামী লীগের সঙ্গে কীভাবে জামায়াতের আঁতাত হয়? এটা জামায়াত ছড়াচ্ছে। তাদের সঙ্গে বিএনপিও রয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে হামিদুর রহমান আযাদ বলেন, ‘জামায়াত সরকারের সাথে আপোষ ও আঁতাতের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। কাজেই সরকারের সাথে আঁতাতের কথা জামায়াতে ইসলামী কখনো প্রচার করে না। বরং সরকারের সমর্থক কিছু সংবাদপত্র ও মিডিয়া সরকারের সাথে জামায়াতে ইসলামীর আঁতাতের কথা প্রচার করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতে চায়। জামায়াতে ইসলামীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো থেকে বিরত থাকার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’






মন্তব্য চালু নেই