মেইন ম্যেনু

বেশি কাজে খুশি হন না বস!

বসকে খুশি করতে কঠোর পরিশ্রম করার দরকার নেই! আপনি আপনার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে খুশি করার জন্য যতই বাড়তি শ্রম দেন না কেন, তাঁরা তা মোটেও গোনার মধ্যে ধরেন না। যুক্তরাষ্ট্রের দুজন গবেষকের সমীক্ষার ফলাফলে এ তথ্য উঠে এসেছে বলে তাঁরা দাবি করেছেন।

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ও শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের এই গবেষক সম্প্রতি এ সমীক্ষা চালান। সায়েন্সডেইলিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

বসের চাপিয়ে দেওয়া কোনো কাজ বা প্রকল্প আপনি তাঁর বেঁধে দেওয়া সময়ের আগেভাগে শেষ করে ফেললেন এবং আগেভাগেই তাকে কাজ বুঝিয়ে দিলেন—এটা আপনার কাছে ভালো মনে হতে পারে। কিন্তু গবেষকেরা দাবি করছেন, এতে আসলে কোনো ফায়দা পান না ওই কর্মী। গবেষকদের তথ্যমতে, বেঁধে দেওয়া সময়ের কাজ আগে শেষ করলে তা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এটা ধর্তব্যের মধ্যে ধরেন না, কিন্তু কাজে দেরি করলে তা নিয়ে দুই কথা শোনাতে ছাড়েন না।

গবেষকেরা বলেন, ‘প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করার জন্য মূল্য দিতে হয় বটে, কিন্তু প্রতিশ্রুতি রক্ষার জন্য অতিরিক্ত প্রচেষ্টার কোনো মূল্যই পাওয়া যায় না।’

সমীক্ষায় দেখা গেছে, যাঁরা খুব বেশি ভালো করে বসেন, তাঁদের কাজে অফিসের বস সন্তুষ্ট হতে পারেন না। তাঁরা যখন কোনো প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেন না, তখন আবার খুব বিরক্ত হন। কাজেই দ্রুত কাজ শেষ করেও সে রকম প্রশংসা পাওয়ার আশা করা বৃথা।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই