মেইন ম্যেনু

বেরোবিতে ‘টেকশই উন্নয়নে নারীর অবদান বিষয়ক গণসচেতনতা’ শীর্ষক কর্মসূচি শুরু

বেরোবি প্রতিনিধি : বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে এবহফবৎ ঐঁন প্রতিষ্ঠার অংশ হিসেবে বছরব্যাপী ফিল্ম-শো ও লেকচার সিরিজ এর শুভ সূচনা উপলক্ষে আজ সোমবার থেকে তিন দিনব্যাপী (১৭-১৯ এপ্রিল ২০১৭) ‘টেকশই উন্নয়নে নারীর অবদান বিষয়ক গণসচেতনতা’ শীর্ষক কর্মসূচি শুরু হয়েছে। বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইউএসএআইডি, বাংলাদেশ যৌথভাবে আয়োজিত কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী। পরে তিনি ক্যাফেটেরিয়া ভবনে আয়োজিত কর্মক্ষেত্রে নারী ও নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ক আলোকচিত্র প্রদর্শনী ঘুরে ঘুরে দেখেন।

এসময় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান, বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. নাজমুল হক, ইউএসএআইডি-এর জেন্ডার উপদেষ্টা মাহমুদা রহমান খান, বিখ্যাত আলোকচিত্রি পাভেল রহমান উপস্থিত ছিলেন।

দুপুর ১২টায় একই ভবনে ‘বাল্য বিয়ে রোধে ডুকুমেন্টারি ফিল্ম’ শো অনুষ্ঠিত হয়। ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন সার্ভিসেস এর পরিচালনায় ঘন্টাব্যাপী এই ফিল্ম-শো অনুষ্ঠিত হয়। পরে এই ফিল্ম-শো’র উপর প্যানেল আলোচনায় অংশ নিয়ে উপাচার্য বলেন, নারী জাগরণের অগ্রদূত রোকেয়ার আদর্শ নিয়ে প্রতিষ্ঠিত বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ই হবে নারীর তীর্থ স্থান। নারীর ক্ষমতায়ন, নারীর জাগরণ, বাল্য বিয়ে রোধ এবং নারী-পুরুষ সমতাসহ নারী উন্নয়নে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অনন্য ভূমিকা পালন করবে।

উপাচার্য ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা তরুণ তোমরাই পারবে দেশটাকে একটি বৈষম্যহীন হিসেবে গড়ে তুলতে। যেখানে নারী-পুরুষ সমানে সমান অংশীদারিত্ব বজায় রাখতে পারবে। উন্মোক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে রংপুরের গংগাচরায় ইউএসএআইডি’র সহযোগিতায় পরিচালিত প্রকল্পের আওতাভুক্ত বিভিন্ন স্কুলের ছেলে-মেয়েরা বাল্য বিয়ে রোধে তাদের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। একই সাথে তারা তাদের জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। প্যানেল আলোচনায় আরো অংশ নিয়েছেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান, প্রক্টর (চ.দা.) মীর তামান্না ছিদ্দিকা, ইউএসএআইডি-এর জেন্ডার উপদেষ্টা মাহমুদা রহমান খান, রংপুর মহিলা পরিষদের সভাপতি রুমানা জামান।

বিকাল চারটায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বাউল এবং কুশান পালা অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে ক্যাম্পাসে নারী উদ্যোক্ত মেলা সকাল থেকেই শুরু হয়েছে। মেলায় রংপুরের নারী উদ্যোক্তাদের প্রায় ৩০টি স্টল রয়েছে। এরমধ্যে হেন্ডিক্রাফট, শতরঞ্জি এবং হস্তশিল্প সংক্রান্ত স্টল ছাড়াও রয়েছে খাবারের স্ট্রল।

উল্লেখ্য, এ উপলক্ষে প্রতিদিন ক্যাম্পাসে নারী উদ্যোক্তা মেলা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী, ফিল্ম-শো, আলোচনা, কর্মশালা, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, বাউল গানসহ মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক আনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই