মেইন ম্যেনু

বিচার বিভাগ নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে : মির্জা ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যেই পার্লামেন্টে জনগণের প্রতিনিধিত্ব নেই সেই পার্লামেন্টের অধীনে বিচার বিভাগকে নেয়ার চেষ্টা চলছে। এটা সরকারের গভীর ষড়যন্ত্র।

তিনি বলেন, ‘ঈদের পর আন্দোলনের মাধ্যমে বর্তমান অবৈধ সরকারের পতন ঘটিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে জেল থেকে মুক্ত করা হবে।’

শুক্রবার রাজধানীর ঢাকাশ্বরী মন্দিরের পার্শ্বে অবস্থিত সাগুন কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নাসির উদ্দিন আহাম্মেন পিন্টুর মুক্তি ও সুস্বাস্থ্য কামনায় আয়োজিত দোয়া ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। চকবাজার থানা বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠন এই কর্মসূচির আয়োজন করে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘বাকশাল কায়েমের উদ্দেশ্যেই সরকার আইন বিভাগ নিয়ন্ত্রণে নেয়ার চেষ্টা করছে। তাদের আইন পরিবর্তন করার কোনো অধিকার নেই। এ সরকারের তো জনসমর্থন নেই। তাদের কোনো নৈতিক ভিত্তি নেই।’

পিলখানায় বিডিআর অফিসারদের হত্যা করে বর্তমান সরকার জাতীয় নিরাপত্তা ধ্বংস করেছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘বিডিআর হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা জড়িত অথচ এই ঘটনায় বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে কারাগারে নির্যাতন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘এটাকে সরকার বলা যায় না। আজকেও নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেছেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ত্রুটিপূর্ণ ছিল। সব দলের আলোচনার মাধ্যমে একটি সুষ্ঠু গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা উচিৎ।’

পিন্টুকে গণতন্ত্রের সৈনিক উল্লেখ করে বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘আওয়ামী সরকার তার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে রেখেছে। এই সরকারকে পরাজিত করে নাসির উদ্দিন পিন্টুকে জেল থেকে বের করে আনতে হবে।’

বিএনপি নেতা পিন্টুর সহধর্মিনী কমিশনার নাসিমা আক্তার কল্পনা বলেন, ‘মিথ্যা বানোয়াট ও কাল্পনিক মামলায় পিন্টুকে আটক করে রাখা হয়েছে। সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে জোরপূর্বক সরকার তাকে আটকে রেখে কারাগারে নির্মম নির্যাতন করছে।’

চকবাজার থানা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব আনোয়ার পারভেজ বাদলের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু কল্পনা প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই