মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ-চীন সর্ম্পক আরো মজবুত হবে

চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক আরো মজবুত ও সুদৃঢ় হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে কনফারেন্স লাউঞ্জে বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ অ্যাসেসিয়েশন আয়োজিত বাংলাদশে ও চীনের ৬৫তম প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘চীন দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সহযোগিতা করছে। বিএনপি ক্ষমতায় এলে দুই দেশের মধ্যে সর্ম্পক আরো মজবুত হবে, সুদৃঢ় হবে। তা কখনো ক্ষুণ্ণ হওয়ার নয়।’

ফখরুল বলেন, ‘গণচীনের জনগণ দীর্ঘকাল স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন, সংগ্রাম করেছে ঠিক একইভাবে বাংলাদেশের মানুষ দীর্ঘদিন যুদ্ধ-সংগ্রাম করে স্বাধীনতা অর্জন করেছে। এখনও মানুষ আন্দোলন-সংগ্রাম করছে।’

তিনি বলেন, ‘গণচীনের সঙ্গে বাংলাদেশের সর্ম্পক উন্নয়নে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বিশেষ ভূমিকা রেখেছিলেন। কিন্তু তিনি আজ রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে জেলে বন্দী। এর তীব্র নিন্দা জানাই। অবিলম্বে তার মুক্তি কামনা করছি।’

বিএনপির এই মূখপাত্র বলেন, ‘গণচীন বাংলাদেশের মানুষের কাছে অত্যান্ত প্রিয় নাম। যুগ যুগ ধরে চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের মানুষের সর্ম্পক রয়েছে। গণচীনের সঙ্গে বাংলাদেশর কূটনৈতিক সর্ম্পক স্থাপন করেছিলেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি নাজমুল হক নান্নুর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন চীনের রাষ্ট্রদূত কিউ জুয়াংহু, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. জেডএম জাহিদ হোসেন, বিশিষ্ট সাংবাদিক ড. মাহবুল্লাহ প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই