মেইন ম্যেনু

বইটির লেখক একে খন্দকার নন?

সম্প্রতি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নির্ভর দুটি বিতর্কিত বইয়ের লেখক দ্বয় আসল কি না তা নিয়েই সন্দেহ প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশেষ কোনো ব্যক্তির লেখার সঙ্গে এই বই দুটির লেখার ধরনের মিল রয়েছে বলে দাবি করলেন তিনি। একই সঙ্গে প্রকাশকের ‘দায়িত্বহীনতা’ নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।
শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেয়ার পর দেশে ফিরে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হলো।
প্রথমে লিখিত বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের বাংলাদেশের প্রশংসিত হওয়া, সেখানে বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকের বিষয় তুলে ধরেন। এরপর সাংবাদিক বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।
সম্প্রতি আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক মন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধের উপসেনাপতি একে খন্দকারের আত্মজীবনীমূলক বই ১৯৭১: ভেতরে বাইরে এবং বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের বড় মেয়ে শারমীন আহমেদ লিখিত ‘তাজউদ্দীন আহমেদ নেতা ও পিতা’ শীর্ষক বই নিয়ে বিতর্কের বিষয়ে কথা বলেছেন শেখ হাসিনা।
এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এসব বইয়ে মনের মাধুরী মিশিয়ে যে যা খুশি লিখছে। আপনারা বইটি লেখার ধরন দেখলে বুঝবেন, সেটা যেন অন্য কারো লেখা।’
এসব বইয়ে ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছে বলে তিনিও মনে করেন। আর প্রকাশক কেন এসব জেনেশুনে ছাপলো তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই