মেইন ম্যেনু

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)’র কিছু টুকরো খবর (৩১/১০/১৪)

পোকামাকড় তাড়াতে আফ্রিকান ধৈঞ্চা গাছ: পার্বতীপুরে লাইফ পাচিং হিসেবে কৃষক প্রিয় হয়ে উঠেছে আফ্রিকান ধৈঞ্চা গাছ। আমন ক্ষেতের পোকা-মাকড় তাড়াতে এক সময় ক্ষেতের মধ্যে পাখি বসার স্থান হিসেবে বাঁশের কঞ্চি ব্যবহার করা হলেও এখন প্রতি জমিতে লাগানো হয়েছে জীবন্ত ধৈঞ্চা গাছ। যা লাইফ পাচিং হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেছে। কৃষি কর্মকর্তাদের মতে পরিবেশ বান্ধব ধৈঞ্চা গাছে পাখি বসে ধানের ক্ষতিকর পোকা-মাকড় ধরে খায়। অপর দিকে গাছের ঝরে পড়া পাতা জৈব সার হিসেবে ক্ষেতের উপকারসহ জ্বালানী হিসেবে ব্যবহারের সুযোগ পাচ্ছে কৃষকরা। এ কারনে দিনে দিনে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে পাচিং এর ব্যবহার।
উপজেলার ১০ ইউনিয়নের আমন খেতে এখন চোখে পড়ছে জীবন্ত পাচিং হিসেবে ধৈঞ্চা গাছ। সকাল ও পড়ন্ত বিকেলে ওই সব গাছে বসছে না জাতের পাখি। ধরে ধরে খাচ্ছে ক্ষেতের ক্ষতিকর পোকা-মাকড়। মন্মথপুর ইউনিয়নের নারায়ন পুর গ্রামের কৃষক গবিন্দলাল চৌহান বলেন, তিনি ৬ একর জমিতে আমন চাষ করেছেন। গত বছর কিছু জমিতে পাচিং ব্যবহার করে সুফল পাওয়ায় এবার প্রতি জমিতেই জীবন্ত ধৈঞ্চা গাছ লাগিয়েছেন পাখি বসার জন্য। চন্ডিপুর ইউনিয়নের কালিকাবাড়ী গ্রামের কৃষক জিকরুল হক বলেন, তিনি ২ একর জমিতে পাচিং হিসেবে ৩-৪টি করে ধৈঞ্চা গাছ লাগিয়েছেন। ধৈঞ্চা লাগালে কীটনাশক ঔষধ খুব একটা ব্যবহার করতে হয় না।
জানা যায়, উপজেলায় এবার ২৭হাজার ২৪০ হেক্টর জমিতে আমন চাষ করা হয়েছে। আফ্রিকান ধৈঞ্চা গাছকে পাচিং হিসেবে ব্যবহারে সুফল পাওয়ায় কৃষক ১৬ হাজার ৩৪০ হেক্টর জমিতে নিজেরাই ধৈঞ্চা ব্যবহার করেছেন। এ সব ধৈঞ্চার বীজ কৃষকরা নিজেরাই এবং অফিস থেকেও বীজ সরবরাহ করা হয়েছে।
মন্মথপুর ইউনিয়নের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ফারুক আহম্মেদ বলেন, আমন ক্ষেতে মাজরা পোকা, পাতা মোড়ানো পোকা, ঘাস ফড়িং, চুঙ্গি, লেদা, পামরী পোকাসহ নানা জাতের পোকার আক্রমন করে। কৃষকরা বেশী দামে কীট নাশক কিনতে পারে না। তাই পোকা তাড়ানোর উপায় হিসেবে ক্ষেতে ক্ষেতে পাচিং হিসেবে জীবন্ত ধৈঞ্চা গাছ লাগানো হয়েছে। ওই সব গাছে পাখি বসে ক্ষতিকর পোকা ধরে খেয়ে ফেলে। তিনি বলেন তার ইউনিয়নে ১২শ হেক্টর জমি পাচিং এর আওতায় এসেছে।
এ ব্যাপারে পার্বতীপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু ফাত্তাহ মোঃ রওশন কবির বলেন, পূর্বে কৃষক ক্ষেতে বাঁশের কঞ্চি অথবা ঝান্ডি গেঁড়ে পাচিং হিসেবে ব্যবহার করতো। এখন জীবন্ত পাচিং হিসেবে আফ্রিকান ধৈঞ্চা ব্যবহার করছে কৃষক। রোপা লাগানো কালে একই সাথে ধৈঞ্চা গাছের চারা লাগানো হয় জমিতে। ধান গাছের চেয়ে দ্রুত বেড়ে ওঠে ধৈঞ্চা গাছ। ওই সব গছে পাখি বসে পোকা-মাকড় নিধন করে। ধান কাটা শেষ হলে ধৈঞ্চার পাতা জমিতে পড়ে জৈব সার তৈরী হয় এবং গাছ গুলোকে জ্বালানী হিসাবে ব্যবহার কর যায়। তিনি বলেন, ফলন সাশ্রয়ী এবং পরিবেশ বান্ধব ধৈঞ্চা গাছ ব্যবহার করতে কৃষকদের উৎসাহিত করা হচ্ছে।চলতি বছরে রোপা আমনে রোগও পোকা মাগড় আক্রমন নেই বললে চলে। এবছর কৃষকরা ভাল ফলন পাবেন বলে তিনি জানান।

বিপুল পরিমাণ ভারতীয় মালামাল জব্দ: দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে উপজেলা টাস্কফোর্স ফুলবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনে চিলাহাটি গামী তিতুমীর এক্সপ্রেস আন্তঃনগর ট্রেনে তল্লাশি করে বিপুল পরিমাণ চোরাপথে আসা ভারতীয় মালামাল জব্দ করেছে। Phulbari Traskforce-29.10.2014গত মঙ্গলবার ২৮ অক্টোবর বেলা সাড়ে ১১টায় এ মালামাল জব্দ করা হয়। ফুলবাড়ী থানার ওসি এবিএম রেজাউল ইসলাম জানান, উপজেলা টাস্কফোর্স বেলা সাড়ে ১১টা হতে ১২টা পর্যন্ত তিতুমীর এক্সপ্রেস ট্রেন তল্লাশি করে ভারত থেকে চোরাপথে আসা ১টি শাড়ী, ২৭টি বউটুপি, ৩টি শাল চাদর, ৩টি সিনকারা, ২টি গ্যানিকল, ৪৮০ জোড়া কানের দুল, ১৬টি স্টিল প্লেট ও ৩টি কার্পেট আটক করে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ৩৪ হাজার টাকা। এ সময় অভিযানে ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবির নায়েক সুবেদার নজরুল ইসলাম ও হাবিলদার আব্দুস সাদেকের নেতৃত্বে একদল বিজিবি সদস্য ও ফুলবাড়ী থানার পুলিশ ফোর্স অংশ নেয়।

ভবানীপুর ডিগ্রী কলেজের ভবন উদ্বোধন:Bhabanipur-29.10.2014

প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী আলহাজ্ব এ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি বলেছেন, দেশের উন্নয়ন ধারা অব্যাহত থাকবে, যতদিন রবে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার। আর জনগণ জানে, আওয়ামীলীগকে ভোট দিলে দেশ ও জনগণের উন্নয়ন ঘটবেই। এরই বহিঃপ্রকাশ বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের জয়গান। তিনি খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, আন্দোলনের নামে আওয়ামীলীগকে ভয় দেখিয়ে লাভ নেই। নিজের দলকে আগে গোছান, তারপর আন্দোলনের নাম নেন। তিনি বলেন, দেশবাসীকে সাথে নিয়ে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার কাজ করে যাচ্ছে। আগামী ২০১৫ সালের মধ্যে দলমত নির্বিশেষে সকলে মিলে দেশকে স্বাক্ষরতার আওতায় আনতে চাই। বুধবার ২৯ অক্টোবর দিনাজপুরের পার্বতীপুর ভবানীপুর ডিগ্রী কলেজে নব নির্মিত ভবন উদ্বোধনসহ শহীদ মিনারের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মো. মোখলেছুর রহমান’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. হাফিজুল ইসলাম প্রামাণিক, পার্বতীপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক কলেজ পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম, কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য গোলাম মতুর্জা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. সৈয়েদুল আলম শান্তু প্রমুখ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শাহ্ আলম, ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আশরাফুল আলম ডাবলু, সদস্য সৈয়দ হাসান রুবেল, পার্বতীপুর ৮নং ইউপি স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শাহ্ আব্দুল আলীম সাজু, ছাত্রলীগের আহবায়ক মিঠুন সরকার প্রমুখ। এছাড়াও মন্ত্রী পার্বতীপুরের ৮নং হাবড়া ইউনিয়নের আরজীদেবীপুর নিরাপদ মাতৃপ্রসব কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। সর্বশেষে মন্ত্রী একই ইউনিয়নের আরজীদেবীপুর শিয়ালকোট মাদ্রাসায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

জ্বলে উঠলোশুকতারাপ্রকল্পের উদ্বোধন: দেশকে নিরক্ষর মুক্ত করার লক্ষ্য নিয়ে পার্বতীপুরের মন্ডল পাড়া গ্রাম থেকে যাত্রা শুরু করলো ‘শুকতারা’ নামের একটি পাইলট প্রকল্প। সফলতা এলে নিরক্ষর মানুষদের স্বাক্ষরতা শেখাতে সারা দেশে বাস্তবায়ন করা হবে প্রকল্পটি। Parbatipur Suktara Project-29.10.2014মঙ্গলবার ২৮ অক্টোবর বিকেল সোয়া ৫টায় দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের মন্ডলপাড়া গ্রামে এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এ্যাডঃ মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার। আফাজ উদ্দীন স্মৃতি সংসদ এর আয়োজনে গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে মন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, আগামী ২০১৫ সালের মধ্যে পার্বতীপুর ও ফুলবাড়ী উপজেলাকে নিরক্ষর মুক্ত করা হবে। মন্ডল পাড়া গ্রামের ১৮৫ জন নিরক্ষর নারী পুরুষকে নিয়েই যাত্রা শুরু হল শুকতারা। স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে প্রকল্পে কাজ করবেন গ্রামের শিক্ষিত যুব সমাজ ছাড়াও ছাত্র-ছাত্রী। নিরক্ষরদের স্বাক্ষর জ্ঞানের পাশাপাশি স্যানিটেশন, পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা, প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া হবে। পর্যাক্রমে প্রতিটি ওয়ার্ডে করা হবে কম্পিউটার ক্লাব। পরে তিনি ওই গ্রামের ছপুরা (৭৫) ও মাবুদ (৮২) নামের দুই নিরক্ষর ব্যাক্তিকে নিজ হাতে স্বাক্ষর করতে শেখান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগ সভাপতি হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক, চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি কৃষিবিদ নুর মোঃ রাজা, প্রেস ক্লাব ও ইয়ংস্টার ক্লাবের সভাপতি আমজাদ হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, শিক্ষা অফিসার মকবুল হোসেন, অধ্যক্ষ আবুবক্কর ছিদ্দিক, আঃ রাজ্জাক সরর্দার, ওসি মাহমুদুল আলাম প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই