মেইন ম্যেনু

প্রতিবন্ধী ধর্ষণ চেষ্টায় কসাই জেলে

কুড়িগ্রামের উলিপুরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে তৈয়ব আলী (৪০) নামের এক কসাইকে জেলহাজতে পাঠিয়েছে আদালত।

সে উলিপুর উপজেলার পান্ডুল ইউনিয়নের আপুয়ার খাতা গ্রামেহাজীর পুত্র ও দুই সন্তানের জনক।

এর আগে বৃহস্পতিবার ভোররাতে ধর্ষণচেষ্টাকালে ওই কসাইকে প্রতিবেশীরা হাতে-নাতে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোরে জেলার উলিপুর পৌর এলাকার নাওডাঙ্গা গ্রামের সভাউল্ল্যা হাজীর পুত্র কসাই তৈয়ব আলী (৪০) পাশের গ্রামের হত-দরিদ্র পরিবারের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক সন্তানের জননীর ঘরে ভোর ৩ টার দিকে প্রবেশ করে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় ঐ বুদ্ধি প্রতিবন্ধীর হাউমাউ চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে ঐ ঘর ঘিরে ফেলে কসাইকে আটক করে। এ খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ঘটনাস্থলে এসে লম্পট তাকে গণধোলাই দিয়ে দুই হাত বেঁধে রাখে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ঐ দিনই প্রতিবন্ধী মেয়েটি নিজে বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ শুক্রবার তাকে জেলহাজতে পাঠায়।

এলাকাবাসী জানায়, কসাই তৈয়ব আলী ইতিপূর্বেও নারী ঘটিত একাধিক অনৈতিক কর্মকাণ্ডে ধরা পড়লেও রহস্যজনক কারণে পার পেয়ে যায়।

এ বিষয়ে উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জমির উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মামলা দায়েরের পর আটক তৈয়ব আলীকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই