মেইন ম্যেনু

‘পার্কে যুবক-যুবতীকে প্রেম করতে দেখলেই পেটাচ্ছে পুলিশ’ (দেখুন ভিডিওসহ)

উত্তরপ্রদেশেও এবার মুম্বাইয়ের ‘নীতি’ পুলিশের ছায়া। পার্কে প্রাপ্তবয়স্ক যুবক-যুবতীকে প্রেম করতে দেখলেই বেধড়ক পেটাচ্ছে পুলিশ। পোশাকি নাম ‘অপারেশন মজনু’। আড়ালে বর্বরতা। পার্কে প্রাপ্তবয়স্ক প্রেমিক-প্রেমিকাদের আটক করছে পুলিশ। তারপর কান ধরে দাঁড় করিয়ে বেতের বাড়ি মারা হচ্ছে। একটি সর্বভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল মারফৎ এই ফুটেজ ছড়িয়ে পড়তেই দেশজুড়ে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

প্রশ্ন উঠতে শুরু হয়েছে রাজ্যজুড়ে ক্রাইমের রমরমার মধ্যে পুলিশের কাজ কী কারও ব্যক্তিগত জীবনে হস্তক্ষেপ করা? পার্কে প্রাপ্তবয়স্করা কী করছে সেটাই কি পুলিশের মূল মাথাব্যথা?

কয়েকদিন আগে মুম্বাইতেও প্রায় একই ঘটনা ঘটে। বেশ কয়েকজন দম্পতি নিরিবিলিতে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন মুম্বাইয়ের মালওয়ানির হোটেলে। সেই দোষেই হোটেলের দরজা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হল ৪০ যুগলকে। থানায় চরম অপমানের শিকার হতে হয় তাদের। ঘটনায় মুখ পোড়ে পুলিশের।

d71fa801c6b120c4a9328d10bfb2fbec

মুম্বাইয়ের পর এবার উত্তরপ্রদেশ। পুলিশের নীতিগিরি থামছেই না।

সিপিএম নেত্রী সুহাসিনী আলি বলেন, “পুলিশের কাজ কী ছোট ছেলেমেয়েদের লাঠিপেটা করা? নাকি অপরাধীদের গ্রেফতার করা?”

যদিও দেশজোড়া সমালোচনার মুখে পড়েও নির্বিকার ইউপি পুলিশ। এক শীর্ষ আধিকারিকদের দাবি, “ওরা পার্কে বসে অশ্লীল কাজকর্ম করছিল। রাজ্যজুড়ে মহিলাদের উপর অত্যাচার রুখতেই এই পদক্ষেপ”।






মন্তব্য চালু নেই