মেইন ম্যেনু

পাঁচ দিনেই ৬০০ কোটি টাকা, প্রতি সেকেন্ডে কত টিকিট বিক্রি?

বাণিজ্যিক সাফল্যে দেশের প্রায় সব রকম রেকর্ড ভেঙে দেওয়ার পথে ‘বাহুবলী: দ্য কনক্লুশন’। দু’বছর আগে যখন ‘বাহুবলী’ মুক্তি পায় তখন থেকেই কিন্তু দর্শকদের অপেক্ষা শুরু হয়ে গিয়েছিল পরবর্তী ছবিটির জন্য। তাই প্রথম ছবিটির বক্স অফিস কালেকশনকে খুব অল্পদিনের মধ্যেই ছাপিয়ে যাবে দ্বিতীয় ছবিটি।

গত শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল দেশ ও বিদেশ মিলিয়ে মোট ৯০০০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে এই ছবি। মাত্র পাঁচদিনে ছবিটি ব্যবসা করেছে ১০০ মিলিয়ন ডলারের বা ৬০০ কোটি টাকার। ওপেনিং ডে-তেই এই ছবি ব্যবসা করেছে ১০০ কোটির। সেখানে ‘দঙ্গল’-এর ওপেনিং ডে-তে ব্যবসা ছিল ২৯ কোটি এবং ‘সুলতান’-এর ওপেনিং ডে ব্যবসা ছিল ৩৬ কোটি।

পাঁচদিনেই যদি এই অবস্থা হয় তবে আরও দু’সপ্তাহের মাথায় কোথায় গিয়ে পৌঁছবে মোট বক্স অফিস কালেকশনের সংখ্যাটা সেটা ভেবেই কূল পাওয়া যাচ্ছে না। এখনও পর্যন্ত দেশের সর্বোচ্চ বক্স অফিস কালেকশনের রেকর্ড রয়েছে ‘পিকে’ ছবির। মোট কালেকশন ছিল ৭৯২ কোটি টাকা। এর পরেই রয়েছে ‘দঙ্গল’। মোট কালেকশন ৭৩০ কোটি টাকা। চতুর্থ নম্বরে রয়েছে ‘বাহুবলী: দ্য বিগিনিং’।

বহু বিশেষজ্ঞের ধারণা, ‘বাহুবলী: দ্য কনক্লুশন’ মোট ব্যবসার পরিমাণে ছুঁতে পারে ১০০০ কোটি অর্থাৎ ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এই মুহূর্তে যা গতি-প্রকৃতি, তাতে আর এক সপ্তাহের মধ্যেই ওই স্ল্যাবে পৌঁছে যেতে পারে সিরিজের এই দ্বিতীয় ছবিটি।

ছবি নিয়ে দর্শকদের উন্মাদনা কোন স্তরে পৌঁছেছে, সেটা বোঝা যাবে অনলাইন শো বুকিং পোর্টাল ‘বুকমাইশো’-এর দেওয়া দু’টি তথ্যে। অ্যাডভান্স বুকিংয়ের ক্ষেত্রেও রেকর্ড সৃষ্টি করেছে এই ছবি। হায়দরাবাদে ছবির বুকিং শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ২ মে পর্যন্ত বিক্রি হয়ে যায় সমস্ত টিকিট। প্রতি সেকেন্ডে ১২টি করে টিকিট বিক্রি হয় বলে জানিয়েছে ওই পোর্টাল।

এই জয়জয়কার শুধু যে দেশের ভিতরে তা নয়, বিদেশেও। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রিলিজের সপ্তাহেই ‘বাহুবলী: দ্য কনক্লুশন’-এর উইকএন্ড কালেকশন ছিল ১০ কোটি মার্কিন ডলারেরও বেশি। বাণিজ্যিক সাফল্যে শেষ পর্যন্ত কোন কোন হলিউড ছবিকে ছাপিয়ে গেল ‘বাহুবলী: দ্য কনক্লুশন’ তা জানা যাবে অচিরেই।






মন্তব্য চালু নেই