মেইন ম্যেনু

রাজারকুলে তাফসীর মাহফিলে আল্লামা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনছারী :

পাঁচটি মামলায় প্রত্যেককে আদালতের কাটগড়ায় দাড়াতে হবে

মানুষের জীবন ক্ষনস্থায়ী তাই পার্থিব জীবনে লোভ-লালসা এবং অস্থায়ী ক্ষমতার মোহে নিজেকে ধ্বংস না করে সর্ব শক্তিমান ও সার্বভৌম ক্ষমতার অধীকারী মহান আল্লাহ প্রদত্ত এবং তাঁর প্রিয় নবী রাসুল (সা:) প্রদশির্ত পথে নিজেদের পরিচালিত করে পরিপূর্ণ মুমিন হিসাবে নিজেদের গড়ে তোলার আহবান জানিয়েছেন প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন ও আর্ন্তজাতিক খ্যাতি সম্পন্ন মুফাচ্ছিরে কোরআন আল্লামা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনছারী।

রামু উপজেলার ৭নং রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে হাফেজ পাড়া জামে মসজিদ ময়দানে ২দিন ব্যাপি তাফসীরুল কোরআন মাহফিলের শেষ দিনে গতকাল তিনি উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি আরো বলেন প্রত্যেক মানুষকে অবশ্যই ৫টি কঠিন পরিক্ষা বা মামলার আসামী হয়ে আল্লাহর আদালতের কাটগড়ায় দাড়াতে হবে। আর সেগুলো হল মূত্যু,কবর. হাশর মিজান ও পুলসিরাত। পৃথিবীতে নেক আমল না করলে এই ৫ মামলা হতে আল্লাহর দরবারে কারো জামিন হবেনা, তাই পরকালে মুক্তির লক্ষ্যে সুন্দর সমাজ গঠনে মুসলমানদেরকে হযরত ইবরাহীম (আ:) এর পদাঙখ অনুসরনে যুব সমাজ সহ সকলের দৃষ্টি আর্কষন করেন।

রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুর রহিম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত মাহফিলের (২দিন) প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগ এর সভাপতি মুজিবুর রহমান চেয়াম্যান। বিশেষ বক্তা হিসাবে তাফসির করেন আল্লামা তারিকুল ইসলাম সাইদ আনসারী ও চট্টগ্রাম সুফিয়া আলিয়া মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা জামাল উদ্দীন ।

উক্ত তাফসীর মাহফিলের ১ম দিনে রাজারকুল ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার আলহ্জ্বা ফজল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলের প্রধান অতিথি ছিলেন রামু উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিয়াজুল আলম।প্রধান বক্তা হিসেবে তাফসীর করেন চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আল্লামা ড. বি.এম মুফিজুর রহমান আল-আজহারী, বিশেষ বক্তা হিসাবে তাফসির করেন চট্টগ্রাম বাইতুল মামুর শাহী জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুফতি ওবাইদুল্লাহ রফিক। ২দিন ব্যাপি উক্ত তাফসীর মাহফিলের প্রচার ও সার্বিক তত্ববধানে ছিলেন স্থানীয় যুব সমাজের পক্ষে হাফেজ পাড়া তাফসীরুল কোরআন বাস্তাবায়ন কমিটি।

মাহফিল শেষে বিশ্বমুসলিম উম্মাহর সুখ শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় আল্লামা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনছারীর মোনাজাতে হাজার হাজার মানুষের কান্না বিজড়িত “আমিন-আমিন” ধ্বনিতে রাজারকুলের আকাশ বাতাস প্রকম্পিত হয়ে উঠে।






মন্তব্য চালু নেই