মেইন ম্যেনু

পরাজয় ভুলতে লাস ভেগাসে রুনির মধুচন্দ্রিমা!

বিশ্বকাপে পরাজয়ের শোক কাটাতে লাস ভেগাসের বিনোদনে ডুব দিলেন ইংল্যান্ডের ওয়েইন রুনি!

ব্রাজিল বিশ্বকাপের গ্রুপ লিগে তিন ম্যাচ খেলে ইংল্যান্ডের কোনো জয় নেই। এক মাত্র ড্র কোস্টারিকার বিরুদ্ধে। গ্রুপ লিগ থেকেই বিদায় নেয়া রয় হজসনের টিম প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে। সেই রেশ কাটতে না কাটতে ছয় দিনের মধ্যে লাস ভেগাসে স্ত্রী কলিনকে নিয়ে আনন্দ বিনোদনে মেতেছেন রুনি। ইংল্যান্ডের সংবাদপত্রে বিষয়টি ফলাও করে ছাপা হয়েছে। নতুন বিতর্ক শুরু হয়েছে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের এ স্ট্রাইকারকে কেন্দ্র কর।

এক ঝাঁক বন্ধুর সঙ্গে এনকোর বিচ ক্লাবের ভিআইপি বাংলোয় রীতিমতো আনন্দে গা ভাসাতে দেখা গেছে রুনি-কলিনদের। সুইমিং পুলের ধারে রোদ পোহানো, ওয়াইনে চুমুক দেয়া আর সেখানে রুনির চোখেমুখে শুধুই ছুটির আমেজ। সবচেয়ে আশ্চর্য়ের বিষয়, ছয় দিনের মধ্যে কী করে রুনি ভুলে গেলেন বিশ্বকাপ ব্যর্থতা!

বিশ্বকাপের আগে সবচেয়ে বেশি চাপে ছিলেন রুনিই। আগের দুটো বিশ্বকাপ খেলেও গোল পাননি তিনি। খরা কাটাতে পারবেন কি না, তা নিয়ে ছিল ব্যাপক সংশয়। ইতালি ম্যাচে শেষ পর্যন্ত গোল পান। রুনিকে সমর্থন করতে দুই ছেলেকে নিয়ে ব্রাজিল ছুটে গিয়েছিলেন স্ত্রী কলিনও। কোরিন্থিয়ান্স স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে বসে বাবার গোল করা দেখে কেঁদে ফেলেছিলেন রুনির দশ বছরের ছেলে কাই। রুনি গোল করলেও দেশকে জেতাতে পারেননি। ইতালির কাছে ১-২ হেরে যায় ইংল্যান্ড।

গ্রুপ লিগের দুই ম্যাচ খেলেই কার্যত গ্রুপ লিগ থেকে ছিটকে যায় ইংল্যান্ড। ২৮ বছরের ফুটবলারের ক্লাবের হয়ে প্রি সিজন শুরু হওয়ার আগে ছুটি কাটাতে গিয়ে কিছুটা হলেও চাপে পড়ে গেছেন। এ বার ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের দায়িত্ব নিচ্ছেন লুই ফান গল। যার সঙ্গে রুনির সমস্যা হতে পারে বলে ব্রিটিশ মিডিয়া গুঞ্জন তুলেছে। তার আগে রুনির ছুটি কাটাতে যাওয়া নিয়ে আর এক দফা বিতর্ক তৈরি হল।

ইংল্যান্ডের নানা কাগজ বলছে, এক সপ্তাহও কাটেনি বিশ্বকাপ থেকে ইংল্যান্ডের ছিটকে যাওয়া। তার মধ্যেই কী করে ছুটি কাটাতে যেতে পারেন রুনি! ম্যান ইউনাইটেডের সুপারস্টার ফুটবলার এ নিয়ে বিন্দুমাত্র ভাবিত নন। বিতর্ক যতই থাকুক, তিনি বরাবর নিজের পথে হেঁটেছেন। এ বারও চেনা রুনিই ধরা পড়ছেন লাস ভেগাসে!






মন্তব্য চালু নেই