মেইন ম্যেনু

না’গঞ্জ ৭ খুন : আটক র‌্যাব সদস্যের আত্মহত্যার চেষ্টা

নারায়ণগঞ্জের বহুল আলোচিত ৭ জনকে অপহরণ ও খুনের মামলায় আটক র‌্যাপিড একশন ব্যাটলিয়নের (র‌্যাব-১১) সদস্য ল্যান্স নায়েক বেলাল হোসেন (৪৫) আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। তাকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ কারাগারে আটক অবস্থায় গতকাল শুক্রবার রাতে তিনি নিজের গলায় ও পেটে ব্লেড চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন বলে কারা কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে। তারা জানায়, ঘটনার পরপরই বেলালকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের পাঠানো হয়। সেখান থেকে রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এদিকে নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের এক কর্মচারী জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার পর বিল্লাল হোসেন বলতে থাকেন, আমাকে বাঁচাবেন না। আমি খুন করেছি। আমি ৭ খুনের সাথে জড়িত। আমাকে মরতে দেন।
নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক আসাদুজ্জামান জানান, বিল্লাল হোসেনের গলায় ও পেটে ওয়ান টাইম ব্লেড দিয়ে কেটে ফেলা হয়েছে। তবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গেছে, বেলাল হোসেনের শরীরে ৪টি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এর মধ্যে গলায় ৩টি এবং একটি পেটে। ঢাকা মেডিকেলের নাক, কান ও গলা (ইএনটি) বিভাগে ৩১৫ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসক আসিফের অধীনে চিকিৎসাধীন বেলাল। আসিফ জানান, বেলালের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার শ্বাসনালি ও পেট কেটে গেছে। কাটা জায়গায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক ফরমান আলী বলেন, নারায়ণগঞ্জ কারাগার থেকে বেলালকে রাত সোয়া একটার দিকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারের জেলার মো. ফোরকান বলেন, তারা মনে করছেন বেলাল আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। চিকিৎসকের প্রতিবেদন পাওয়ার পর ঘটনার প্রকৃত কারণ জানা যাবে।






মন্তব্য চালু নেই