মেইন ম্যেনু

রাউজানে জাতীয় কবির জন্মজয়ন্তী অনুষ্ঠানে বক্তরা

নজরুল ছিলেন নিজ ধর্মের প্রতি অবিচল আস্থাশীল

উপমহাদেশে শ্রেষ্ঠ সন্তানদের একজন বহুগুনে গুনান্বিত বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল একদিকে ছিলেন অসম্প্রদায়িতক চেতনায় বিশ্বাসী, অন্যদিকে ছিল নিজ ধর্মের প্রতি তার অবিচল বিশ্বাস। অনেক কবিতা ও কাব্যে তার এই অনুভূতি প্রকাশ পায়। শোষণ বঞ্চনার বিরুদ্ধে তার সংগ্রমী কবিতা ও গান এখনো আমাদের জাতিয় জীবনে প্রেরণা যোগায়।

গত ২৫ মে রাউজান কবি নজরুল সাহিত্য পরিষদের উদ্যোগে কবি’র ১১৬তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এই অভিমত ব্যক্ত করেন অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক দৈনিক আজাদী সিনিয়র সহ-সম্পাদক খোরশেদ আলম। তিনি বলেন জাতীয় কবি নজরুল জাতিকে পরাধীনতার শৃংঙ্খলমুক্ত করতে আজীবন সংগ্রামী ভূমিকা পালন করে গেছে। তার প্রতিটি লিখনী আজো শক্তি ও সাহস যোগাচ্ছে জাতিকে। কবির এই মন্ত্রে (রণ সঙ্গীত)উদ্ভুদ্ধ হয়ে আমাদের সেনা বাহিনী আজ বীরত্বে সাথে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা পাচ্ছে। দক্ষিণ রাউজান নোয়াপাড়া পথেরহাটস্থ কবি নজরুল সাহিত্য পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ের অনুষ্ঠিত এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করে সংগঠনের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর আলম সুমন। এস.এম. কামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাউজানে প্রবীণ কবি বদর শরীফ আহম্মদ।

এখানে বক্তব্য রাখেন রাউজান নিউজ ২৪ ডটকমের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কামরুল ইসলাম বাবু, সাংবাদিক এম নেজাম উদ্দীন রানা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গাজী জয়নাল আবেদীন যুবাইর, সমাজ সেবক সেলিম জাবেদ রানা, পলাস বড়–য়া, মহিন উদ্দীন, ফজল করিম, আলমগীর মামুন, এস এম মুজিব, রুবেল বৈদ্য, মোঃ জুবায়ের, টি.এইস মুন্না, নঈম উদ্দিন চৌধুরী , রুপম সরকার, অভি চৌধুরী, মোঃ আজিজ প্রমুখ।

বক্তাগণ তাদের আলোচনায় কবি কাজী নজরুল ইসলামে কবিতা ও গানের উদাহরণ তুলে ধরে তাকে সমাজের বঞ্চিত, নিপীড়িত মানুষের অকৃত্রিম বন্ধু হিসাবে আখ্যয়িত করেন। সর্বশেষ কবির বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই