মেইন ম্যেনু

দুঃশাসন, দুর্নীতি ও দলীয়করণের মহোৎসব চলছে

‘দেশের সর্বত্র দুঃশাসন, দুর্নীতি ও দলীয়করণের মহোৎসব চলছে’ বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

তিনি বলেন, ‘মানুষ এখন থাকলে খুন, বাইরে গেলে গুম। গণতন্ত্রের নামে মানুষের উপর অত্যাচার চলছে। যে গণতন্ত্র মানুষের নিরাপত্তা দিতে পারে না সেটি গণতন্ত্র নয়, এটি হচ্ছে এক দলের গণতন্ত্র।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানীতে নিজ কার্যালয়ে জাতীয় তাঁতী পার্টির মতবিনিময় ও পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এরশাদ এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাবেক এ রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘সর্বত্র দুর্নীতি, দলীয়করণের মহোৎসব চলছে। বারবার কেবল ক্ষমতার পালাবদল হয়েছে, মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি। কোথায় সুশাসন? চারিদিকে প্রতিহিংসা আর জিঘাংসার রাজনীতি চলছে। ক্ষমতা ছাড়লেই মামলা দিয়ে জেলে ঢুকিয়ে দিচ্ছে। কিন্তু ভারতে বিজেপি ক্ষমতা ছাড়ার পর তো কারও নামে কোনো মামলা হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘এই ঈদে মানুষ বাড়ি গেলো, শোনা গেলো বাড়ি যেতে সড়ক দুর্ঘটনায় একশ-দুশ মানুষ মারা গেছে। মানুষের জীবনের কোনো মূল্য নেই। মানুষের জীবন গরু-ছাগলের মতো হয়ে গেলো। গরিব মানুষ বলে তাদের খবর নেয়া হয় না। এর বিহিত করতে হবে। এভাবে চলতে পারে না।’

বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে সাবেক এ রাষ্ট্রপতি বলেন. ‘বিএনপি আন্দোলনের ডাক দেয়। দেওয়ানি মামলার তারিখের মতো ডেট দেয়। ঈদ যায়, পূজা যায়, কিন্তু বিএনপির আন্দোলন আসে না। আন্দোলনের নাম নিশানা কোথাও দেখি না। কিন্তু জাতীয় পার্টি রাস্তায়, সংসদে সর্বত্র আছে।’

ছাত্রদলের কমিটি গঠনের পর বিক্ষোভ-ককটেল বিস্ফোরণ প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, ‘আমরা অনেক কমিটি করেছি কিন্তু কোনো সংঘর্ষ হয়নি। আমরা সন্ত্রাসের রাজনীতি করি না, জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেই না।’

সম্প্রতি রংপুরে জাতীয় পার্টির দুই গ্রুপের সংঘর্ষের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নদীতে জোয়ার এলে এমন হয়। জাতীয় পার্টিতে জোয়ার এসেছে। তবে জাতীয় পার্টির নেতৃত্ব একজনের হাতেই। আমিই সে নেতা।’

লতিফ সিদ্দিকী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী মূল্যবোধের দল। আমরাই প্রথম তার বিরুদ্ধে রাজপথে প্রতিবাদ জানিয়েছি। তিনি দেশে ফিরে এলে যেনো তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়।’

সভায় জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দীন আহমেদ বাবলু উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই