মেইন ম্যেনু

দিনাজপুরের সীমান্ত এলাকায় সর্বত্রই মাদক!

মাদকে ছেয়ে গেছে সীমান্ত ঘেষা দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী,নবাবগঞ্জ, বিরামপুর, হাকিম পুর ও ঘোড়াঘাট উপজেলা।
গত ৫ মাসে ৪০বিজিবির টহল দল বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ২০কোটি টাকা মূল্যের ভারত থেকে পাচার হয়ে আসা নিষিদ্ধ ফেন্সিডিল, গাঁজা, হিরোইনসহ বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য আটক করেছে। এছাড়া বিভিন্ন সময় থানা পুলিশ, ডিবি পুলিশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ অভিযান চালিয়ে আটক করেছে অনেক মাদক ব্যবসায়ীকে।
এত কিছুর পরেও এসব এলাকায় মাদকের ব্যবহার ও মাদকসেবীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
বিভিন্ন সময় ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা পাওয়া মাদক সেবীদের কাছ থেকে জানা গেছে, শুধু ফুলবাড়ী উপজেলার পৌরশহর থেকে একেবারে অজোপাড়া গাঁ পর্যন্ত প্রায় শতাধিক জায়গায় চলছে রমরমা মাদক ব্যবসা। তার মধ্য পৌর এলাকার স্টেশন পাড়া, কাজিখানা রোড, কাটাবাড়ী নয়াপাড়া, শিবনগর ইউপির দক্ষিন বাসিদেবপুর, মালিপাড়া মোড়, পাটক পাড়া শিবনগর, আলাদিপুর ইউপির বাসুদেবপুর, বারাইহাট, ঘোনাপাড়া, খয়েরবাড়ী ইউপির লক্ষিপুরসহ প্রায় শতাধিক স্থানে চলছে মাদক বেচা-কেনা।
ঐএলাকার বাসিন্দারা জানায়, সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মাদকসেবীরা মোটরসাইকেল, রিক্সা-ভ্যানযোগে এই এলাকায় এসে মাদক সেবন করছে।
এছাড়া বিরামপুর উপজেলার কয়েকটি ও হাকিমপুর উপজেলার হাড়িপুকুর নামক স্থানে মাদক সহজলভ্য হওয়ায় দূর দূরান্ত থেকে মাদক সেবীরা সেখানে গিয়ে মাদক সেবন করছে। একাধিক স্থানে মাদকের ছড়াছড়ি হওয়ায় উঠতি বয়সের যুবকেরা মাদক সেবনে ঝুঁকে পড়ছে। এতে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ছে ঐ এলাকার অভিভাবকেরা।

এ বিষয়ে, প্রশাসনের একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা সকলেই মাদক মুক্ত সমাজ গঠন ও মাদক পাচার বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দেন।
ফুলবাড়ী ৪০বিজিবির অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল জাহিদুর রশিদ বলেন, মাদকের পাচার রোধ করতে বিজিবি সদ্যরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছে। তবে তিনি মাদক মুক্ত সমাজ গঠনের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।






মন্তব্য চালু নেই