মেইন ম্যেনু

দিনাজপুরের কিছু খবর (১৪/১০/১৪)

বিরামপুরে রাস্তার পাশে অবৈধ স্থাপনা অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন:
দিনাজপুরের বিরামপুর শহরে মহাসড়কের দু’পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবিতে এবং ট্রাক চাপায় আশরাফুলের মৃত্যুর প্রতিবাদে মঙ্গলবার (১৪ অক্টোবর) মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে।উপজেলার আচোলকোল গ্রামের এমবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র আশরাফুল সোমবার (১৩ অক্টোঃ) বিরামপুর পূর্বপাড়া মোড়ে ট্রাক চাপায় নিহত হয়। মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় মহাসড়ের দু’পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবিতে উপজেলার সচেতন নাগরিক সমাজ ফুঁসে ওঠে।
দূর্ঘটনাস্থলে মানব বন্ধন কালে বক্তব্য রাখেন, বিরামপুর বিএম কলেজের অধ্যক্ষ রেজাউল করিম সেলিম, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এলাকা পরিচালক শাহাবুল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সভাপতি মোবারক হোসেন, শফিকুল ইসলাম দুলাল মেম্বার, শামছুজ্জোহা শাহী, সাংবাদিক হাফিজ উদ্দিন সরকার, ডাঃ নূরুল হক, কামরুজ্জামান প্রমূখ। শেষে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, ফুটপাত দখলমুক্ত ও পূর্বপাড়া মোড়ে স্পিড ব্রেকার পুনঃস্থাপনের দাবিতে ইউএনও’র নিকট স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে।

হিলিতে আরনু জুট মিলে আগুনে, কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি:
হিলিতে আরনু জুটমিলের গুদামে আগুন লেগে বেশ কিছু পাট পুড়ে গেছে। জুটমিলটির পাশেই ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের অবস্থান থাকায় অল্পের জন্য ব্যপক ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেল জুট মিলটি।
আরনু জুট মিলের প্রশাসনিক কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, সকাল পোনে ৯ টার দিকে হঠাৎ করে জুট মিলের গোডাউনে ভিতর ধুয়া দেখতে পেয়ে পাশে থাকা ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনে খবর দেয়। এসময় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সঙ্গে সঙ্গে এসে পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্তন আনে। আধা ঘন্টা আগুনে প্রায় কয়েক লাখ টাকার পাট পুড়ে গেছে বলে দাবি করেছে মিল কতৃপক্ষ।
মিলের শ্রমিকরা জানায়, এসময় জুট মিলটিতে কর্মরত ছিলো প্রায় ৩শ শ্রমিক।বিপদ সংকেত বাজার সাথে-সাথে শ্রমিকরা মিল থেকে নিরাপদে বেড়িয়ে অসতে সক্ষম হয়েছে। এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
এদিকে, হিলি ফায়ায় সার্ভিস ষ্টেশনের ইনচার্জ ছোলায়মান আলী জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনা স্থলে হাজির হয়ে আগন নিয়ন্ত্রনের আনার চেষ্টা করে। আধাঘন্টা চেষ্টারপর গুদামের আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে আসে। তিনি জানান, বিদ্যুতের সট সার্কিট থেকে আগুনের সুত্র পাত হতে ।

ট্রাক চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত:
বিরামপুরে ১৩ অক্টোবর সোমবার দুপুরে মটরসাইকেল এবং ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে আশরাফুল ইসলাম (২৫) নামের এক যুবক ঘটনা স্থলেই নিহত হয়েছেন। নিহত আশরাফুল ইসলাম বিরামপুর উপজেলার জোতবানি ইউনিয়নের আঁচলকোল গ্রামের আঃ দলিল মন্ডলের ছেলে এবং আশা ইউনিভার্সিটির এমবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র ।
বিরামপুর থানার এস আই মামুন জানান, আশরাফুল ইসলাম মটরসাইকেল চালিয়ে গন্তব্যস্থলে যাওয়ার পথে বিরামপুর শহরের পূর্বপাড়া মোড়ে বিপরীত মুখি দ্রতগামী (দিনাজপুর-ট-১১-০১২৬) নং মালবাহী ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছে। এ সময় ঘাতক ট্রাকটি পুলিশ ট্রাকটিকে আটক করে কিন্তু চালক পালিয়েছে।
বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মমিনূল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ বিষয়ে মামলা প্রস্তুতি চলছে।

অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতীয় নাগরিক আটক:
বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অভিযোগে যোগেন পাল (৪৮) নামে ভারতীয় এক নাগরিককে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।
সোমবার (১৩ অক্টোঃ) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে হিলি সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করলে বিজিবি তাকে আটক করেন। তিনি ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুর থানার গোপালপুর-নয়াবাজার গ্রামের মৃত যদ্দি পালের ছেলে।
বিজিবি’র হিলি চেকপোষ্ট ক্যাম্পের সুবেদার আব্দুল হামিদ জানান, আটককৃত ভারতীয় যোগেন সকালে হিলি সীমান্তের ২৮৫ মেইন পিলারের পাশদিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। এসময় কর্তব্যরত বিজিবি সদস্যরা তার কাছে বৈধ কোনো কাগজপত্র আছে কি-না দেখতে চাইলে তিনি অবৈধভাবে প্রবেশ করেছেন বলে স্বীকার করেন।
তখন বিজিবি সদস্যরা তাকে অনুপ্রবেশের অভিযোগে আটক করে ক্যাম্পে নিয়ে আসে। তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থ্য নেওয়া হচ্ছে।

দূর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত:
র‌্যালী, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সোমবার (১৩ অক্টোঃ) বিরামপুরে আন্তর্জাতিক দূর্যোগ প্রশমন দিবস পালন করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে বর্ণাঢ্য র‌্যালী শেষে উপজেলা অডিটরিয়ামে ইউএনও এসএম মনিরুজ্জামান আল মাসউদ এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিঠুন কুন্ডু, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এসএম জিন্নাহ, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজল কুমার সরকার, সমাজ সেবা কর্মকর্তা ময়নুল হক, পল্ল¬ী উন্নয়ন কর্মকর্তা আব্বাস আলী শেখ, পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আরমান হোসেন, ওয়ার্ল্ড ভিশনের প্রকল্প ম্যানেজার জেমস মন্ডল প্রমূখ।

৭ বাংলাদেশিকে হিলি চেকপোষ্ট দিয়ে ফেরত পাঠাল বিএসএফ:
হিলি সীমান্ত দিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশের দায়ে আটক ৯ বাংলাদেশি নাগরিককে ফেরত দিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। আজ বিকেল ৪টায় হিলি সীমান্তের চেকপোষ্ট দিয়ে তাদের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) কাছে হস্তান্তর করে।
আটককৃতরা হলেন, নরসিংদীর বেলাবো উপজেলার উজিলাবো গ্রামের আবুল বাশারের ছেলে হাবিবুল্লাহ (২৪), একই গ্রামের জয়নাল আবেদিনের ছেলে আশরাফ আলী (১৯), জয়নাল হোসেনের ছেলে কাউছার হোসেন (২৭), দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার বয়রা গ্রামের পঞ্চাননের ছেলে জয়শংকর বর্মণ (৩৬), ঢাকার আশুলিয়া উপজেলার বাদাইল গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে বাবু মিয়া (১৭), পঞ্চগড়ের দেবিগঞ্জ উপজেলার বানিয়াপাড়ার আলঙ্গ বর্মণের ছেলে আনন্দ বর্মণ (১৯) ও নীলফামারী সদরের পূর্বডাঙ্গাপাড়ার সুরেশ রায়ের ছেলে হরি রায় (১৭)।
বিজিবি’র হিলি চেকপোষ্ট ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার আব্দুল হামিদ জানান, আটক হওয়া বাংলাদেশিরা গতকাল শনিবার অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করলে হিলি ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা তাদের আটক করে। পরে বিজিবি এবং বিএসএফের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের মধ্যে ফেরতের বিষয়ে আলোচনা হয়। এই প্রেক্ষিতে আজ বিকেল ৪টার দিকে হিলি সীমান্তের চেকপোষ্ট দিয়ে বিএসএফ তাদের হস্তান্তর করলে হাকিমপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।
এদিকে বিএসএফের পতিরাম-৯৬ ব্যাটালিয়নের হিলি ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার সংগ্রাম বিশওয়াল জানান, গতকাল শনিবার দুপুরের দিকে আটক হওয়া বাংলাদেশিরা সন্দেহজনক ভাবে ভারত সীমান্তের অভ্যন্তরে ঘোরাঘুরি করছিল। তারা হিলি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করে। জিঞ্জাসাবাদে তারা পাসপোর্ট বা কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। তখন তাদের আটক করা হয়।

দিনাজপুর হাবিপ্রবি ঈদ ও পূজার ছুটি শেষে খুলেছে:
পবিত্র ঈদুল আযহা ও শারদীয় দূর্গা পূজার ছুটি শেষে আজ রবিবার থেকে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক রুটিন অনুযায়ী রবিবার থেকে সব বিভাগের ক্লাশ ও পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রবিবার সকালে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডীন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, শাখা প্রধানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। উল্লেখ্য, ঈদুল আযহা ও দূর্গা পূজা উপলক্ষে গত ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও ১ অক্টোবর থেকে অফিস ছুটি শুরু হয়।

ট্রেন চলাচলে চরম বিপর্যয়,যাত্রীদের চরম ভোগান্তির:
বৃহৎ রেলজংশন পার্বতীপুরে সকল আন্তঃনগর ট্রেনের সিডিউলে চরম বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। ঈদ শেষে পরিবার-পরিজন নিয়ে ঢাকামুখি যাত্রীরা ট্রেনের জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে। অভিযোগ উঠেছে ষ্টেশন মাষ্টার ও বুকিং ক্লার্করা টিকেট বে¬াক করে দ্বিগুন টাকা নিয়ে বিত্রি“ করেছে।
পার্বতীপুর রেলজংশন থেকে ঢাকা মুখি আন্তঃনগর ট্রেনগুলো চলছে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে ৩ ঘন্টা থেকে ৯ ঘন্টা এমনকি ১২ ঘন্টাও দেরীতে চলাচল করছে। ট্রেন গুলো চলাচলেও দেখা দিয়েছে চরম বিপর্যয়। অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে ট্রেন গুলো চলাচল করায় যে কোন সময় ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে এ আশংকা করছে রেল কর্তৃপক্ষ। যাত্রীরা লাইনে দাড়িয়েও টিকেট পাচ্ছেনা।
অভিযোগ উটেছে ষ্টেশন মাষ্টার ও বুকিং ক্লার্করা যোগ সাজস করে টিকেট বে¬াক করে পরে দ্বিগুন মূল্য বিত্রি“ করছেন। এ অভিযোগ অনেক যাত্রীর। এবিষয়ে রেলওয়ে পশ্চিম জেনারেল ম্যানেজারকে মুঠোফোনে অভিযোগ করেও কোন ফল হয়নি।
ট্রেনগুলো বিলম্বে চলাচল করায় যাত্রীদের দূর্ভোগ সীমাহীন আকার ধারণ ছাড়াও ঘটছে চুরি, ছিনতাইসহ নানা ঘটনা। রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের পার্বতীপুর রেল জংশন থেকে ঢাকা গামী ৪ টি আন্তঃনগর ট্রেনে চলাচল করছে। এর মধ্যে ঈদ উপলক্ষে যুক্ত হয়েছে ঈদ স্পেশাল আন্তঃনগর ট্রেন।
পশ্চিমাঞ্চলের বৃহৎ রেল জংশন ষ্টেশন পার্বতীপুরসহ বিভিন্ন ষ্টেশনে নির্ধারিত সময় আসা যাত্রীদেরকে সারারাত ষ্টেশনের থাকতে হয়। ষ্টেশন গুলোতে যাত্রীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমানে টয়েলেট বা পানির ব্যবস্থা না থাকায় মহিলা যাত্রীদেরকে পড়তে হয় চরম বিপাকে। রাতে দেখা দেয় খাবারের অভাব।
পার্বতীপুর রেলওয়ে ষ্টেশন মাষ্টার শেখ আব্দুল জব্বার জানান, সকলের ঈদের ছুটি শেষ। কর্মস্থালে ফিরতে যাত্রীদের চাপ অনেক বেশী। সে তুলোনায় পার্বতীপুরে ট্রেনের আসন সংখ্যা সীমিত। তিনি আরো বলেন, ষ্টেশন গুলোতে যাত্রী উঠা নামায় অনেক বেশ সময় লাগছে। এছাড়াও ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশী যাত্রী ট্রেন উটায় ট্রেনগুলো চলছে ধীর গতিতে। তিনি বলেন, যাত্রী বেশীর কারনে বঙ্গবন্ধু সেতু সহ বিভিন্ন ঝুকিপূর্ন সেতুগুলোতে বিশেষ সাবধানতা অবলম্বন করে ট্রেন চলাচল করছে। ফলে ট্রেনের সিডিউল ঠিক রাখা যাচ্ছেনা।
এছাড়াও রেলওয়ের একটি সূত্র বলেন, যতদিন পযর্ন্ত ডব¬ল রেলপথ হবে না ততদিন ট্রেন চলাচলে এ বিড়াম্বনা থাকবে। ডব¬ল রেলপথ হলে এক লাইন দিয়ে ট্রেন যাবে ও অন্য রেললাইন দিয়ে ট্রেন আসবে। ট্রেন বিলম্বের কোন সম্ভবনা থাকবেনা।

হাবিপ্রবি’র ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে ৩৩ জন পরীক্ষার্থী:
হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ১৭৬০ আসনের বিপরীতে ৫৭ হাজার ৩’শ ৭৬ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন অনুষদে ভর্তির জন্য আবেদন করেছে। এই হিসেবে এবার হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতি আসনের বিপরীতে ৩৩ জন শিক্ষার্থী প্রতিযোগিতা করবে। ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২ নভেম্বর থেকে ৫ নভেম্বরের মধ্যে।
এবার ৭ টি অনুষদের অধীনে ১৮ টি কোর্সে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি হতে পারবে। সংরক্ষিত আসনে বিভিন্ন কোটায় শিক্ষার্থীদের ভর্তির সুযোগ রাখা হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১৫ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদ নামে নতুন ১টি অনুষদ ও ৬ টি ডিগ্রী চালু করা হয়েছে। ২০১৫ শিক্ষাবর্ষ হতে এসব ডিগ্রীর অধীনে শিক্ষার্থী ভর্তিসহ পূর্ণাঙ্গ শিক্ষাকার্যক্রম শুরু করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই