মেইন ম্যেনু

দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণের জন্যই আইটেম গান

বর্তমান চলচ্চিত্রে আইটেম গানের জোয়ার দেখে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক কাজী হায়াৎ বলেছেন, সেলিব্রিটি (তারকা) নায়িকাদের অভাব পূরণ করার জন্য আইটেম গানকে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, দর্শক এখন আর আগের মতো হৃদয় কাঁপানো নায়িকা পাচ্ছেন না। যাদের দেখে পুরোপুরি আনন্দ পেতে পারেন। এখনকার নায়িকারা তাদের মনে দোলা দিতে পারছেন না। ফলে দর্শক প্রত্যাশা পূরণের জন্যই নির্মাতাদের আইটেম গানের ওপর ঝুঁকতে হচ্ছে। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, বেশির ভাগ ছবিতেই আইটেম গান গল্পের জায়গা মতো না পড়ায় দর্শকরা আনন্দ পাচ্ছেন না। ফলে আইটেম গানে চলে আসছে অশ্লীলতা। এটা এখন সুস্থধারার চলচ্চিত্রের জন্য নতুন সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, এখন যে কোন ছবিতেই আইটেম গান থাকতে হয়। নির্মাতাদের থেকে শুরু করে ব্যবসায়ী সবার মাথায় ঢুকে গেছে আইটেম গান।
কাজী হায়াৎ বলেন, এখন যেটা আইটেম গান, সেটা সব সময়ই ছিল। আমরা বলতাম ফিল্মের ভাষায় ক্লাইমেক্স গান। প্রতিটি অ্যাকশনধর্মী ছবির শেষ দৃশ্যে একটা নাচগান থাকতো দর্শকদের রিলিফ দেয়ার জন্য। একদিকে গান চলছে, অন্যদিকে নায়ক ছুটে আসছে নায়িকাকে কিংবা তার পিতা-মাতাকে ভিলেনের হাত থেকে উদ্ধার করতে। অনেক সময় শাবানা-ববিতার মতো খ্যাতিমান নায়িকারাও এসব গানে অংশ নিয়েছেন গল্পের প্রয়োজনে। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দর্শকরা শরবরী থেকে শুরু করে নাসরিন-জেসমিনকে দেখেছেন। এখন দেখছেন নতুন যে কাউকেই। সবই ঠিক আছে, নতুন নাম বদলেছে।
তিনি বলেন, গল্পের প্রয়োজনে হলে ঠিক আছে। কিন্তু অপ্রয়োজনে আইটেম গানের নামে দর্শকদের সুড়সুড়ি দেয়ার যে অপচেষ্টা চলছে, তা থেকে মুক্তি পাওয়া দরকার। তা না হলে চলচ্চিত্রকে নতুন করে সমস্যায় পড়তে হবে। এদিকে বক্তব্যধর্মী ছবির নির্মাতা কাজী হায়াৎ এবার দর্শকদের কাছে আসছেন তার নতুন ছবি ‘সর্বনাশা ইয়াবা’ নিয়ে। ইয়াবা বর্তমান তরুণ প্রজন্মের জন্য মারাত্মক সর্বনাশা এক নেশার নাম। পিতা কাজী হায়াৎ আর পুত্র কাজী মারুফ মিলে এই সর্বনাশা ইয়াবা’র বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন তাদের ছবির মাধ্যমে। ছবিটি এখন মুক্তির জন্য প্রস্তুত। সর্বনাশ ইয়াবা’ ছবিতে কাজী মারুফের নায়িকা লাক্স চ্যানেল আই তারকা প্রসূন আজাদ। কাজী হায়াৎ বলেন, সর্বনাশা ইয়াবা’ সাধারণ দর্শকদের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে। এই ছবির মাধ্যমে তরুণ সমাজকে সর্বনাশা মাদক থেকে দূরে থাকার জন্য সচেতনতামূলক পথ দেখানো হয়েছে। আমার বিশ্বাস ছবিটি সব শ্রেণীর দর্শকের ভাল লাগবে।

– See more at: http://www.dhakatimes24.com/2014/09/20/37698#sthash.WIjiakXf.dpuf






মন্তব্য চালু নেই